Date : 2020-02-22

বিদ্যাসাগরের মূর্তি ভাঙায় ১ অভিযুক্তকে গ্রেফতার করল সিট…

ওয়েব ডেস্ক: বিদ্যাসাগরের মূর্তি ভাঙাকে কেন্দ্র করে উত্তপ্ত হয়ে ওঠে রাজ্য রাজনীতি। মূর্তিভাঙার পূর্ণাঙ্গ তদন্তের জন্য সিট গঠন করে রাজ্য সরকার। এবার সেই সিট ঘটনার তদন্তে নেমে একজনকে গ্রেফতার করেছে। ধৃতের নাম তাপস দাস। সপ্তদশ লোকসভা নির্বাচনের আগে এই ঘটনা ছিল সবচেয়ে নক্কারজনক। লালবাজারের ডিসি নর্থের নেতৃত্বে সিট গঠন করা হয়। অমিত শাহর রোড শো-কে কেন্দ্র করে রণক্ষেত্রের চেহারা নেয় কলেজ স্ট্রিট চত্বর।

তৃণমূলের ছাত্র সংগঠন ও বিজেপি নেতা কর্মীরা সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। বিদ্যাসাগর কলেজের ছাত্র সংগঠনের তরফে অভিযোগ করা হয়, বিজেপির কর্মী সমর্থকরা কলেজর মধ্যে ঢুকে এসে কলেজের সম্পত্তি নষ্ট করে পাশাপাশি ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগরের মূর্তি আছড়ে ভেঙে ফেলে তারা। জ্বালিয়ে দেওয়া হয় দুটি বাইক। মূর্তি ভাঙাকে কেন্দ্র করে দুই দলের মধ্যে শুরু হয় তরজা।

দিল্লিতে অমিত শাহ ছবি দেখিয়ে দাবি করে বিদ্যাসাগরের মূর্তি ভেঙেছে তৃণমূলের ছাত্র কর্মীরাই। অন্যদিকে পার্থ চট্টোপাধ্যায় এই অভিযোগকে নস্যাৎ করে দিয়ে ভিডিও দেখিয়ে পাল্টা বিজেপি কর্মীদের উপর মূর্তিভাঙার দায় চাপান। প্রসঙ্গত, এই অভিযোগের ভিত্তিতে লালবাজারে কিছু ভিডিও ফুটেজ সংগ্রহ করে দেখা হয়।

পুলিশ সূত্রে খবর, ভিডিও ফুটেজে উঠে এসেছে মূর্তি ভাঙার ঘটনার মুহুর্তের কিছু চিত্র। এমনকি কলেজের গেট বাইরে থেকে ভেঙে ভিতরে আসার ঘটনায় জড়িত কয়েকজনের ছবি সামনে এসেছে। এই ভিডিওর ভিত্তিতে পুলিশ একজনকে গ্রেফতার করেছে। উল্লেখ্য, অমিত শাহর রোড শো-এর পর দিনই কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় এবং বিদ্যাসাগর কলেজে হামলার ঘটনায় ৫৮ জনকে গ্রেফতার করেছিল পুলিশ।