Date : 2019-06-27

কাঞ্চনজঙ্ঘার কোলে মৃত্যু দুই বাঙালি পর্বতারোহীর

ওয়েব ডেস্ক: কাঞ্চনজঙ্ঘা অভিযানে গিয়ে মৃত্যুর খবর এলো দুই পর্বতারোহীর। উচ্চতার কারণে শরীরের তাপমাত্রা অনেক কমে গিয়েছিল তাদের।

সূত্রের খবর, কুন্তল কারার ও বিপ্লব বৈদ্য নামে দুই পর্বতারোহীকে শেরপারা তিন ও চার নম্বর ক্যাম্পে নামিয়ে আনেন। বিকেলের পর থেকেই তাদের জিপিআরএস ট্র্যাক করা যাচ্ছিল না।

শেরপারা অনেক চেষ্টার পর তাদের ক্যাম্পে নামিয়ে আনে। চিকিৎসার জন্য তাদের হেলিকপ্টারে কাঠমান্ডু নিয়ে যাওয়ার কথা ছিল।

হঠাৎই তাদের মৃত্যুর খবর এসে পৌঁছায়।

কুন্তল কারার

আজ ভোরে মৃত্যুর খবর এসে পৌঁছায় বিপ্লব বৈদ্যর বেহালার বাড়িতে এবং কুন্তল কারার হাওড়ার বাড়িতে। ঘটনাকে কেন্দ্র করে শোকের ছায়া নেমে আসে দুই পরিবারে।

কুন্তলের প্রতিবেশীরা জানিয়েছেন, ছোট থেকেই বাবাকে ট্রেকিং করতে যেতে দেখতেন কুন্তল। সেই থেকে ট্রেকিং-এর নেশা তৈরি হয়েছিল তার মধ্যে।

এমনকি বাবার হাত ধরেই তার প্রশিক্ষণ শুরু হয়। এদিন কুন্তলের মৃত্যুর খবর আসতেই প্রতিবেশী, আত্মীয়-স্বজনরা আসতে শুরু করে তার হাওড়ার বাড়িতে।

বিপ্লব বৈদ্য

কুন্তলের পরিবারকে সমবেদনা জানাতে সেখানে উপস্থিত ছিলেন রাজ্যের সমবায় মন্ত্রী অরূপ বিশ্বাস। মৃত পর্বকতারোহীর পরিবারকে সরকারি ভাবে সব রকম সাহায্যের আশ্বাস দেন তিনি।

বিপ্লব ও কুন্তলের সঙ্গে ওই ক্যাম্পে গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়েন রুদ্রপ্রসাদ হালদার ও রমেশ রায় নামে আরও দুই পর্বতারোহী। উল্লেখ্য, তারা স্নো ব্লাইন্ডনেস ভুগছেন।

তাদেরকেও নামিয়ে আনা সম্ভব হয়েছে। প্রসঙ্গত, ২০১৪ সালে দুই পর্বতারোহীর সঙ্গে কাঞ্চনজঙ্ঘা অভিযানে গিয়ে চিরতরে নিখোঁজ হয়ে যান হাওড়ার মেয়ে ছন্দা গায়েন। ফের সেই স্মৃতি যেন ফিরে এলো।