Date : 2019-06-27

পুনঃস্থাপিত হল বিদ্যাসাগরের মূর্তি, সভামঞ্চ থেকে বিজেপিকে সরাসরি তোপ মমতার

কলকাতা: হেয়ার স্কুলে ঈশ্বর চন্দ্র বিদ্যাসাগরের আবক্ষ মূর্তি উন্মোচন করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। মূর্তি উন্মোচন অনুষ্ঠানে এদিন উপস্থিত ছিলেন রাজ্যের বিশিষ্টজন ও বুদ্ধিজীবীরা। “স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর জন্যই বিদ্যাসাগরের মূর্তি ভেঙেছে। বিজেপির কর্মীরা গেরুয়া ফেট্টি বেঁধে বিদ্যাসাগরের মূর্তি ভেঙেছে।” বিদ্যাসাগরের নতুন মূর্তি উন্মোচন করে এমনই বিস্ফোরক অভিযোগ করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

প্রসঙ্গত, লোকসভা নির্বাচনের শেষ দফায় বিজেপির প্রচারে আসেন বিজেপির সর্বভারতীয় সম্পাদক তথা বর্তমান স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী অমিত শাহ। বিজেপির আয়োজিত রোড শো-কে কেন্দ্র করে রণক্ষেত্র হয়ে ওঠে কলেজ স্ট্রীট চত্বর। কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের সামনে বেশ ছাত্রসংগঠনের তরফ থেকে কালো পতাকা দেখিয়ে ও কালো ব্যাজ পড়ে কয়েকজন ছাত্রছাত্রী অমিত শাহর বিরুদ্ধে স্লোগান দিতে থাকে। মিছিল কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের সামনে পৌঁছতেই বিজেপি সমর্থক ও ছাত্রছাত্রীদের মধ্যে সংঘর্ষ বেঁধে যায়।

ছাত্র-ছাত্রীদের অভিযোগ বিজেপির মিছিল থেকে তাদের লক্ষ্য করে ইট পাটকেল ছুঁড়তে শুরু করা হয়। আহত হন এই ঘটনার রেশ গিয়ে পৌঁছায় বিদ্যাসাগর কলেজে। মিছিল ওখানে পৌঁছাতেই ভাঙচুর শুরু হয় কলেজ চত্বরে। ভেঙে ফেলা হয় বিদ্যাসাগরের আবক্ষ মূর্তি। রাতের অন্ধকারে কে ভাঙল মূর্তি? শাসক দলের তরফে এই ঘটনার দায় চাপানো হয় বিজেপির উপর। শেষ দফা ভোটে মূর্তি ভাঙাকে ইস্যুকে করে শুরু হয় কেন্দ্র রাজ্য তরজা, সবর হয় গোটা দেশের সব মহল।

মূর্তি ভাঙার ২৭ দিনের মধ্যে পূর্ব ঘোষণা অনুসারে মঙ্গলবার বিদ্যাসাগরের মূর্তি উন্মোচন করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। রাজ্যের স্বরাষ্ট্র সচিব আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়ের নেতৃত্বে মূর্তি ভাঙার ৫ সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। কমিটিতে রয়েছেন কলকাতার পুলিশ কমিশনার অনুজ শর্মা, অতিরিক্ত কমিশনার জাভেদ শামিম, এবং বিদ্যাসাগর কলেজের অধ্যক্ষ গৌতম কুণ্ডু। 

বিদ্যাসাগরের মূর্তি ভাঙার ঘটনায় রাজ্যের নতুন স্বরাষ্ট্র সচিব আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়কে মাথায় রেখে পাঁচ সদস্যের কমিটি গড়ে দিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেই কমিটি এখনও পর্যন্ত কোন রিপোর্ট পেশ করেনি। শিক্ষামন্ত্রী সাংবাদিক বৈঠক করে জানান, শুধুমাত্র মূর্তি উন্মোচনই করা হবে না, বিদ্যাসাগর মিউজিয়ামও গঠন করা হবে। এদিন অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন কবি শঙ্খ ঘোষ, সাহিত্যিক শীর্ষেন্দু মুখোপাধ্যায় ও নৃসিংহ প্রসাদ ভাদুড়ি সহ বিশিষ্ট ব্যক্তিরা।