Date : 2019-06-27

সন্দেশখালিতে তৃণমূল-বিজেপি সংঘর্ষ, ১৪৪ ধারা বসিরহাটে, বন্ধ নেট পরিষেবা…

উত্তর ২৪ পরগণা: পতাকা লাগানোকে কেন্দ্র করে রাজনৈতিক অশান্তির জেরে শনিবার রাতে উত্তপ্ত হয়ে ওঠে সন্দেশখালির ন্যাজাট। সূত্রের খবর, শনিবার সন্ধ্যায় লোকসভা ভোটে বসিরহাটে জয়লাভের কারণে বিজয় মিছিল বের করা হয় রাজ্যের শাসকদল তৃণমূল কংগ্রেসের তরফে।

অভিযোগ, এরপরেই স্থানীয় বিজেপির তরফে বাধা দেওয়া হয়। ঘটনার জেরে স্থানীয় তৃণমূল নেতা শাহজাহান শেখ বিজেপি কর্মীদের উপর ব্যাপক হামলা চালায়। এলাকা থেকে একে একে বিজেপির পতাকা খুলতে শুরু করে তৃণমূল। এর জেরেই ব্যাপক রাজনৈতিক সংঘর্ষ ছড়ায় এলাকায়।

রাজ্য বিজেপির সাধারণ সম্পাদক সায়ন্তন বসুর অভিযোগ, সংঘর্ষে ৪ জন বিজেপি কর্মী খুন হয়েছে। এখনও পর্যন্ত নিখোঁজ রয়েছে বেশ কয়েকজন নেতা কর্মী। ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে পাল্টা তৃণমূলের তরফে বিজয় মিছিলে বিজেপির বিরুদ্ধে হামলা চালানোর অভিযোগ উঠেছে।

মিছিলে কায়ুম মোল্লা নামে এক তৃণমূল কর্মীকে কুপিয়ে খুন করার অভিযোগ করা হয়েছে বিজেপির বিরুদ্ধে। শনিবারের ঘটনার পর কেটে গেছে ৪৮ ঘন্টা। এখনও থমথমে সন্দেশখালি। ৮ কর্মী খুনের ঘটনায় ধিক্কার জানিয়ে সোমবার বসিরহাট জুড়ে বন্ধ পালন করা হচ্ছে বিজেপির তরফে।

১৪৪ ধারার কারণে বসিরহাটে সকাল থেকেই বন্ধ ইন্টারনেট পরিষেবা। ঘটনার পূর্ণাঙ্গ তথ্য নিয়ে সোমবার দিল্লির উদ্দেশ্যে রওনা দেন বিজেপি নেতা মুকুল রায়, বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ ও রাহুল সিনহা। বসিরহাট লোকসভা কেন্দ্রে তৃণমূল সাংসদ নুসরত জাহান অবশ্য এই বিষয়ে তেমন কোনো মন্তব্য করেননি।

ঘটনার জেরে দিল্লির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক ইতিমধ্যেই ঘটনার পূর্ণাঙ্গ রিপোর্ট তলব করেছে। রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী অবশ্য গোটা ঘটনার জন্য দায়ী করেছেন বিজেপি নেতা মুকুল রায়কে। ঘটনার পুলিশি তদন্ত ইতিমধ্যেই শুরু হয়েছে।