Date : 2021-10-20

মধ্যরাতে হেনস্থার শিকার মিস ইন্ডিয়া ইউনিভার্স ঊষসী সেনগুপ্ত, ধৃত ৭

কলকাতা: রাতের শহর মেয়েদের জন্য কতটা নিরাপদ? এই নিয়ে এর আগেও অনেক প্রশ্ন উঠেছে। পরিস্থিতি থিতিয়ে যেতেই সব উদ্যোগ ধামাচাপা পড়ে গেছে। বিপদে পড়লে পুলিশের ভূমিকা কি যথেষ্ট সদর্থক থাকে? এমনই চাঞ্চল্যকর অভিযোগ ফের একবার সামনে এলো। সোমবার মধ্যরাতে শহর কলকাতায় ভয়ানক অভিজ্ঞতার সম্মুখীন হলেন প্রাক্তন মিস ইন্ডিয়া ইউনিভার্স ঊষসী সেনগুপ্ত। ঘটনার পূর্ণাঙ্গ বিবরণ দিয়ে একটি ভিডিও পোস্ট করেন তাঁর ফেসবুক ওয়ালে। বিনোদন জগতে কাজ করার জন্য প্রায়শই বাড়ি ফিরতে রাত হয় তাঁর।

সোমবার রাত ১২ নাগাদ তিনি বাড়ি ফিরছিলেন, এক্সাইডের থেকে কিছুটা দূরে তাঁর উবারের সঙ্গে ধাক্কা লাগে একটি বাইকের। ঘটনার জেরে ঊষসীর গাড়ি ঘিরে ধরে চড়াও হয় ওই বাইকের আরোহীসহ বেশ কয়েকজন।

উবার চালকের সঙ্গে বেশ কিছুক্ষণ বচসা হওয়ার পর কার্যত তাণ্ডব চালায় একদল দুষ্কৃতি। ঊষসী তাঁর ফেসবুক পেজে লেখেন, দুষ্কৃতিরা তাঁর গাড়ির দরজা ভাঙার চেষ্টা করে। বাধা দিতে গেলে চালককে গাড়ি থেকে নামিয়ে শুরু করে ব্যাপক মারধর। ঘটনার প্রতিবাদ করতে গেলে প্রাক্তন মিস ইন্ডিয়া ইউনিভার্সকেও কটুক্তি করে দুষ্কৃতিরা।

এরপরেই ঘটনার অভিযোগ জানাতে ঊষসী ছুটে যান ময়দান থানায়। সেখানে গেলে পুলিশের তরফ থেকে তাঁকে জানানো হয় ঘটনাস্থল ভবানীপুর থানার অন্তর্গত, তাই কোন ভাবেই সাহায্য করতে পারবে না ময়দান থানার পুলিশ। এরপর বহুবার ঊষসী অনুরোধ করায় পুলিশ সেখানে যায়। পুলিশকে দেখে তাদের ধাক্কা মেরে এলাকা থেকে পালিয়ে যায় দুষ্কৃতিরা।

এই সম্পূর্ণ ঘটনা নিজের ফেনে ভিডিও করেন ঊষসী। কিন্তু ঘটনার শেষ এখানেই নয়, মঙ্গলবার রাতে লেকগার্ডেন্স থেকে ফেরার পথে ফের বিপদের পড়েন ঊষসী। তিনি ফেসবুক পোস্টে জানিয়েছেন, তাঁর গাড়ি আটকে ফের হামলা করতে শুরু করে দুষ্কৃতিরা। এমনকি তাঁর গাড়ি ধাওয়া করে এগোতে থাকে দুষ্কৃতিরা।

ফের গাড়ি ঘিরে ধরে ঊষসীকে গাড়ি থেকে বের করে তথ্যপ্রমান লোপাটের জন্য ফোন ভেঙে ফেলার চেষ্টা করে দুষ্কৃতিরা। ঊষসী জানান তাঁর বাড়ি ঘটনাস্থল থেকে কাছে হওয়ায় তিনি চিৎকার করে এলাকার লোক ডাকেন।

স্থানীয়রা তাঁর চিৎকারে ছুটে এলে পালিয়ে যায় দুষ্কৃতিরা। পরপর দুটি ঘটনার জেরে আতঙ্কিত হয়ে ঊষসী চারুমার্কেট থানায় অভিযোগ জানান। উবার চালকের তরফে অভিযোগ ঝানাতে গেলে পুলিশ সূত্রে জানানো হয় একই ঘটনার দুটি এফআইআর নেওয়া আইন বিরুদ্ধ। এই ঘটনার জেরে ঊষসী সোশ্যাল মিডিয়ার পুলিশি নিষ্ক্রিয়তার অভিযোগ তুলে ঘটনার ভিডিও পোস্ট করেন।

যেভাবে একের পর এক থানা তাঁর অভিযোগ নিতে অস্বীকার করেছে তাতে হতচকিৎ হয়ে পড়েন ঊষসী। সোশ্যাল মিডিয়ায় তিনি এমনটাই অভিযোগ করেন। ক্ষোভ উগড়ে দিয়ে তিনি বলেন, “আমি মিস ইন্ডিয়া ইউনিভার্স খেতাব জিতেছি। আন্তর্জাতিক মঞ্চে কলকাতার প্রতিনিধিত্বও করেছি। আমার মতো অনেক মেয়েকেই পেশার স্বার্থে রাত অবধি কাজ করতে হয়। রাতের কলকাতার এমন পরিণতি দেখে আমি মর্মাহত। এটাই কি আমার কলকাতা?”

ঘটনার জেরে হৈচৈ পড়ে গেলে পুলিশ ওই ভিডিওর ভিত্তিতে ঘটনায় জড়িত ৭ জনকে গ্রেফতার করে। ইতিমধ্যে তাদের বিরুদ্ধে জামিন অযোগ্য ধারায় মামলা রজু করা হয়েছে বলে পুলিশ সূত্রে খবর। এছাড়াও প্রাক্তন মিস ইন্ডিয়া ইউনিভার্সকে হেনস্থার ঘটনায় ডিসির নেতৃত্বে কমিটি গঠন করে ঘটনার পূর্ণাঙ্গ তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।