Date : 2019-09-18

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটকে “আলবিদা” যুবির…

ওয়েব ডেস্ক: রূপকথার অবসান। আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে হঠাতই অবসর নিলেন যুবরাজ সিং। সোমবার সাংবাদিক বৈঠকে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে অবসরের কথা ঘোষণা করেন যুবি নিজেই। সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে তিনি বলেন, ‘২২ গজে ২৫ বছর কাটানোর পর আমি পরবর্তীর সিদ্ধান্ত নিয়েছি। ক্রিকেটই শিখিয়েছে এগিয়ে চলার মন্ত্র।’

প্রসঙ্গত, ২০১২ সালে দেশের হয়ে শেষবার টেস্ট ম্যাচে খেলেছিলেন যুবরাজ।শেষ ODI ম্যাচ খেলেছেন ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে গত জুনে ।২০১৯ IPL-এও প্রথম দিকে অবিক্রিত ছিলেন যুবি। শেষ মুহূর্তে যুবিকে কিনে নেয় মুম্বই ইণ্ডিয়ান্স। তবে মাত্র ৪টি ম্যাচ খেলার সুযোগ পান যুবরাজ। সবমিলিয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে তাঁর প্রত্যাবর্তন যে কার্যত অসম্ভব তা ক্রমশ প্রকট হচ্ছিল।এদিকে সূত্রের খবর,বিশ্বের বিভিন্ন টি- টোয়েন্টি লিগে খেলার অপেক্ষায় রয়েছেন যুবরাজ।এবিষয়ে বোর্ডের এক কর্তা সংবাদমাধ্যমকে জানান,ক্যানাডা, আয়ারল্যান্ড ও নেদারল্যান্ডের থেকে টি-টোয়েন্টির প্রস্তাব এসেছে যুবরাজের কাছে। এ বিষয়ে বোর্ডের সঙ্গে কথা বলতে চেয়েছেন উনি।’

উল্লেখ্য, ভারতীয় বোর্ডের অনুমতি ছাড়া বিশ্বের অন্য কোনও দেশের টি-টোয়েন্টিতে অংশ নিতে পারেননা ভারতীয় ক্রিকেটাররা। তাই যুবি এই ধরণের চুক্তিতে যেতে চাইলে তাঁকে আগে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের সঙ্গে আলোচনা করতে হবে।

যুবির টানা ২৫ বছরের বর্ণাঢ্য ইনিংস বিশ্বকে দেখিয়েছে তাঁর ব্যাট-বল-ফিল্ডিং-এর দাপট। ২০১১-র ODI বিশ্বকাপ জয়ী ভারতীয় দলের সদস্য যুবরাজ ওই টুর্নামেন্টে হয়েছিলেন ম্যান অফ দ্য সিরিজ। প্রাপ্তির ঝুলিতে রয়েছে একদিনের ক্রিকেটে ৮ হাজারের বেশি রান,১৪টি শতরান ও ৫২টি অর্ধশতরান, পদ্মশ্রী ও অর্জুন পুরস্কারের খেতাব।

২০১১ সালেই তাঁর শরীরে থাবা বসায় মারণ ব্যাধি ক্যান্সার।মুষড়ে পড়েছিলেন তাঁর ফ্যানেরা। তবে দমে যাননি যুবি নিজে। লড়াই করে ফের ফিরে এসেছিলেন বাইশ গজে। এহেন ক্রিকেটীয় নায়কের হঠাৎ অবসরে স্বাভাবতই সোমবারের দুপুরে মন খারাপ ক্রিকেটপ্রেমীদের।