Date : 2021-05-06

১০০ বছর বয়সে খুঁজে পেলেন মনের মানুষ, সারলেন বিয়েও….

ওয়েব ডেস্ক: বয়সটা একটা সংখ্যা মাত্র। আর প্রেমে পড়ার যে কোনও বয়স হয়না সেটা তো সবারই জানা।

কথাটির সত্যতা প্রমাণ করলেন দুই প্রেমিক। জন কুকের বয়স ১০০ ও তাঁর নতুন বউ ফিলিস ১০২।

ওনাদের প্রথমবার দেখা হয় ওহায়ওতে একটি লিভিং ফেসিলিটিতে প্রায় একবছর আগে। দুজনের প্রেমের শুরুটা সেই দিন থেকেই।

এই বছরই জুন মাসে চারহাত এক হয় ওনাদের। ফিলিস নিজেই একটি সাক্ষাৎকারে বলেছেন, সবারই একটা কথা মনে এসেছিল তাদের বিয়ের কথা শুনে, তা হল এতো বেশি বয়সে কিভাবে বিয়ে করতে পারে কেউ।

কিন্তু তাঁরা দুজন দুনকে ভালোবাসেন আর তাদের কাছে এটাই সবথেকে বড় বক্তব্য, আর কিচ্ছু নয়। দুজনেরই এটা তৃতীয় বিবাহ। তাঁদের জন আসলে ছিলেন দ্বিতীয় বিশ্ব যুদ্ধের একজন যোদ্ধা। জুনের ২৬ তারিখ দুটোয় মিলে একদম আইনত বিয়েও সেরে ফেলে।

বিয়েটা যে দুজনেরই প্ল্যানে ছিল সেটা বললেও ভুল হবে। কারণ, এটাও একটা হঠাৎ সিদ্ধান্তই বলা যেতে পারে। একবছর প্রেম করে দুজনেই বুঝতে পেরেছিল যে তাঁরা খুঁজে পেয়েছে তাদের সোলমেট। অন্যান্য প্রেমিক প্রেমিকার থেকে তারা একদমই আলাদা।

কারণ সবাই সাধারণত অনেক বছরের বিবাহবার্ষিকী পালন করে। আর ওঁনারা ১০০ বছর বয়সে খুঁজে পেলেন প্রাণের মানুষ। সত্যিই ভালোবাসার মানুষকে খুঁজে পাওয়ার কোনো আলাদা সময়সীমা হয় না। তাকে খুঁজে পাওয়া যেতে পারে যেকোনো বয়সেই। তার এক বড় প্রমাণ জন ও ফিলিস।