Date : 2019-07-21

বাজেট পেশের আগে আর্থিক বৃদ্ধির হার ৭ শতাংশ হওয়ার পূর্বাভাস সমীক্ষায়

ওয়েব ডেস্ক: আগামীকাল দেশ জুড়ে পেশ হতে চলেছে বাজেট। আয়করে ছাড়ের পরিমান বাড়বে নাকি ব্যাঙ্কে ঋণের বোঝা কমবে? এমন অনেক আশা নিয়ে বুক বাঁধছে গোটা দেশ। বাজেট পেশ এর আগের দিন একটি আর্থীক সমীক্ষা পেশ করে অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমণ জানিয়েছেন আগামী অর্থবর্ষে দেশে আর্থিক বৃদ্ধির হার ৭ শতাংশ পর্যন্ত বাড়তে পারে। দেশের প্রথম র্থমন্ত্রী হিসাবে গোটা দেশবাসীর প্রত্যাশাও অনেক। ইন্দিরা গান্ধীর পর তিনিই দ্বিতীয় মহিলা যিনি বাজেট পেশ করবেন। মধ্যবিত্তের করের ছাড় দিয়ে বিশেষ নজির রাখবেন তিনি এমনটাই মনে করছেন অনেকেই। সেই সমীক্ষার রিপোর্টে জানানো হয়েছে, ২০১৮-১৯ সালের বার্ষিক আর্থিক ঘাটতি ৫.৮%।

২০১৭-১৮ আর্থিক বছরে তা ছিল ৬.৪%। ২০২৫ সালের মধ্যে দেশকে ৫ ট্রিলিয়নের অর্থনীতি হিসেবে গড়ে তোলার যে টার্গেট প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি রেখেছেন, তা পূরণ করতে হলে বৃদ্ধির হার ৮% হওয়া প্রয়োজন বলেও জানানো হয়েছে আর্থিক সমীক্ষায়। ফেব্রুয়ারিতে অন্তর্বর্তী বাজেটে কৃষক ও সাধারণ কর্মীদের জন্য বেশ কিছু চমক রেখেছিলেন।

লোকসভা ভোটে জয়লাভের পর মোদী সরকার তার দ্বিতীয় ইনিংস শুরু করার আগে এই বাজেটেও সাধারণ মানুষের জন্য বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ ইস্যুকে গুরুত্ব দেবেন বলে মনে করছেন সাধারণ মানুষ। তেলের দাম কমানোর ক্ষেত্রেও বাড়তি গুরুত্ব দেওয়া হতে পারে। কর্মসংস্থান বৃদ্ধি, কৃষিক্ষেত্রে উন্নয়ন ইত্যাদি ক্ষেত্রে বিশেষভাবে গুরুত্ব দিতে পারে সরকার এমনটাই মনে করছে দেশের সাধারণ মানুষ। তাই আসন্ন বাজেটে কর্মসংস্থান তৈরির জন্য বিভিন্ন সংস্থার জন্য বিশেষ ছাড় দিতে পারে মোদী সরকার, এমনটাই মনে করছে দেশ বিদেশের বিনিয়োগকারী সংস্থাগুলি।