Date : 2021-03-03

লোকসঙ্গীতের সুরে বাংলার বুকে সম্প্রীতির ডাক দিলো “উজানিয়া”….

কলকাতা: যে মাটিতে ধর্মীয় মৌলবাদের বিরুদ্ধে রক্তক্ষয়ের বদলে কলমের ক্ষয় করে একের পর এক পঙতি রচিত হয়েছে। যে সংস্কৃতি, যে ভাষার মূলে রয়েছে বিদ্রোহী কবি নজরুল ইসলামের কলমের গর্জনে “কাণ্ডারী হুঁশিয়ার”, “পথের দিশার”-এর মতো একাধিক কবিতার ছন্দ। যে দেশে লালন ফকিরের কন্ঠে আকাশ বাতাস মুখরিত হয়, “সব লোকে কয় লালন কি জাত এ সংসারে” লোকসঙ্গীতের সুরে।

যে দেশের সম্প্রীতি বিদেশী শক্তির চক্রান্তের শিকার হয়েও আজও আটুট শিখা প্রজ্বলিত করে দিব্যমান সেই দেশকেই বার বার ধর্মীয় অসহিষ্ণুতা ব্যাধিতে আক্রান্ত হয়। একবিংশ শতকে দাঁড়িয়ে যে দেশ চন্দ্রাভিযান করে সেই দেশে ধর্মীয় সম্প্রীতির বার্তা দিতে পদযাত্রায় অংশগ্রহণ করতে হয় দলে দলে মানুষকে। কলকাতার বুকে অ্যাকাডেমি অফ ফাইনার্টস চত্বরে লোকসঙ্গীতের পৃষ্ঠপোষক “উজানিয়া”র উদ্যোগে আয়োজন করা হয় একটি পদযাত্রার।

এদিন দুপুর ৩ টো ৪০ নাগাদ অ্যাকাডেমি অফ ফাইনার্টস চত্বরে মুক্ত মঞ্চের সামনে থেকে শুরু হয় একটি পদযাত্রার। বাংলার লোকসঙ্গীতের মধ্যে যে সম্প্রীতির বার্তা রয়েছে তা সমাজের সামনে তুলে ধরতে এদিন পদযাত্রার আয়োজন করে উজানিয়া। এদিন পদযাত্রায় উপস্থিত ছিলেন কলকাতা পুরসভার মেয়র পারিষদ দেবাশিস কুমার ও বিশিষ্ট সমাজ কর্মী কার্তিক বন্দ্যোপাধ্যায়। এছাড়াও পদযাত্রায় ছিলেন একাধিক স্বনামধন্য লোকসঙ্গীত শিল্পী।

এদিন একাডেমি অফ ফাইনার্টস থেকে মিছিলটি এক্সাইড হয়ে ফের স্বস্থানে ফিরে আসে। মুক্তমঞ্চে এদিন উজানিয়ার পক্ষ থেকে একাধিক লোকসঙ্গীত শিল্পীদের বিভিন্ন অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। এছাড়াও আগামী ২৭ শে জুলাই উজানিয়ার উদ্যোগে সাম্প্রদায়িকতার বিরুদ্ধে বাংলার লোকসঙ্গীতের শক্তিকে তুলে ধরতে রবীন্দ্র সদনে আয়োজন করা হয়েছে এক সঙ্গীত সন্ধ্যার। এইদিন ধর্মীয় সম্প্রীতি ও শান্তির বার্তা দিতে মঞ্চে লোকসঙ্গীত পরিবেশন করবেন দেশে, বিদেশে সম্মানপ্রাপ্ত শিল্পীরা।