Date : 2021-03-01

২০২০ থেকেই দুটি চাঁদ উঠবে আকাশে…

ওয়েব ডেস্ক: অমাবস্যার রাত মানেই ঘন কালো আকাশের গায়ে লেগে থাকে অসংখ্য তারা। হ্যালোজেনের হলুদ আলোয় অবশ্য শহরের পথঘাট চাঁদের আলোর অনুপস্থিতি অনুভব করে না।

তবে আজও গ্রাম বাংলার বহু মানুষের দু চোখ তাকিয়ে থাকে আকাশে, চাঁদের আলোর হালকা আভা এখনও তাদের মনে আনন্দ বয়ে আনে।

কিন্তু সেই তো পূর্ণিমা চলে গেলেই মুখ লুকোতে থাকে সে।

এক পক্ষকাল আকাশ ছেড়ে অদৃশ্য হয় চাঁদ। চিন অবশ্য চাঁদের অমলিন এই সৌন্দর্য্যকে কখনই কাছ ছাড়া করতে চায় না। তাই এবার অভিনব ভাবনার পথে এগোতে চলেছে তারা। ২০২০ সালের মধ্যে চিনের আকাশে সারা বছর আলোকিত করতে আসছে কৃত্রিম চন্দ্র। চিনের একই আকাশে থাকবে দুই চাঁদ। পথঘাট সব সময় আলোকিত রাখতে এই অভিনব ব্যবস্থা করতে চলেছে চিন। এই চাঁদের আলো এতই বেশি জোরালো হবে যে রাস্তায় বাতিস্তম্ভের আলোর প্রয়োজন হবে না।

এতে নাকি দেশের বিদ্যুৎ খরচ ১৭ কোটি ডলার কম হবে। চিনা দৈনিকের খবরে জানা গিয়েছে, দক্ষিণ সিয়াচেন প্রদেশের চেংদু শহরে এই কৃত্রিম চাঁদের নির্মাণকাজ চলছে। ২০২০ সালে হবে পরীক্ষামূলক উৎক্ষেপণ। আর সেটা যদি সফল হয় তবে এমন আরও তিনটি চাঁদ আকাশে পাঠাবে চিন।

তিয়ান ফু নিউ এরিয়া সায়েন্স সোসাইটির তরফ থেকে সংস্থার কর্ণধার উ চানমেং সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছেন, সমস্ত পরীক্ষা সফল হলে ২০২২ সালে যে চাঁদটিকে পাঠানো হবে সেটিই স্থায়ী ভাবে আকাশে থেকে আলো দেবে ওই এলাকায়। যা সামাজিক ও বাণিজ্যিক দিক থেকে সম্ভাবনাময় এক দিককে তুলে ধরবে।

চিনা দৈনিকের দাবি, ওই নকল চাঁদই নাকি সূর্যের আলোকে প্রতিফলিত করবে অবিকল আসল চাঁদের মতো। এই চাঁদের আলো আসল চাঁদের থেকেও অনেকগুন বেশি হবে ফলে রাতে কোন স্ট্রিট ল্যাম্প জ্বালানোর প্রয়োজন পড়বে না।