Date : 2019-09-19

প্রকাশিত হল জাতীয় নাগরিকপঞ্জীর চূড়ান্ত তালিকা, বাদ পড়ল ১৯ লক্ষ নাম….

ওয়েব ডেস্ক: সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশ অনুসারে অসমে এনআরসি-র চূড়ান্ত তালিকা প্রকাশিত হল আজ। তালিকা থেকে বাদ যাওয়া ৪১ লক্ষ মানুষের মধ্যে নতুন তালিকায় যুক্ত হল ২২লক্ষ মানুষের নাম। সব মিলিয়ে এনআরসির নতুন তালিকায় ঠাঁই পেল ৩,১১,২১,০০৪ জনের নাম। চূড়ান্ত তালিকা থেকে বাদ গেল ১৯ লক্ষ ৬ হাজার ৬৫৮ জনের নাম। শনিবার সকাল ১০টা সরকারি ওয়েব সাইট মারফত এনারসি-এর চূড়ান্ত তালিকা প্রকাশ করা হয়। স্বভাবতই সকাল থেকেই অসম জুড়ে থমথমে পরিস্থিতি। তালিকায় নাম আছে কিনা জানা যাবে এনআরসি সেবাকেন্দ্রে গিয়ে। জেলাশাসকের দপ্তরেও দেখা যাবে এনআরসি তালিকা।

এনআরসির ওয়েবসাইট WWW.assamnrc.nrc.in গিয়ে এআরএন নম্বর টাইপ করেও দেখা যাবে নাম আছে কিনা।

আবেনদনকারীদের জন্য বিশেষ টোল ফ্রি নম্বরেরও ব্যবস্থা করা হয়েছে

(অসমের জন্য-১৫০১৭, অসমের বাইরের জন্য ১৮০০৩৪৫৩৭৬২) ।

তবে তালিকায় যাঁদের নাম নেই তাদের এখনই ডিটেনশন ক্যাম্পে পাঠানো হবে না। দিন অসমের মুখ্যমন্ত্রী সর্বানন্দ সেনোয়াল জানিয়েছেন অসম রাজ্য জুড়ে প্রায় ১ হাজার ফরেনার্স ট্রাইবুনাল খোলা হয়েছে। বিদেশি তকমা প্রদান করে এখনই এনআরসিতে নাম না থাকা ব্যক্তিদের নিয়ে বিশেষ ব্যবস্থা কিছু নিচ্ছে না অসমের রাজ্য সরকার। তবে ফরেনার্স ট্রাইবুনাল যে খুব স্বস্তির বিষয় তা নয়। এখানে নাগরিকত্ব প্রমান করা বেশ কঠিন ব্যাপার। এছাড়া এইভাবে নাগরিকত্ব প্রমাণ করা খরচ সাপেক্ষ।

এদিন অসম রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে আর্থিক ভাবে পিছিয়ে পড়া মানুষদের ফরেনার্স ট্রাইবুনালে নাগরিকত্ব প্রমানের জন্য সাহায্য করা হবে আইনি সহায়তাও দেওয়া হবে। শনিবার এনআরসি তালিকা প্রকাশিত হওয়ার আগে থেকেই ১৪টি জেলায় কারফিউ জারি করে রাখা হয়। অসমে এদিন অতিরিক্ত ৫১ কোম্পানি আধা সেনা মোতায়েন করা ছিল।

প্রতিটি গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্টে ছিল নাকা চেকিং। সতর্ক দৃষ্টি রাখা হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ার উপরও। প্রশাসনিক ভাবেও নজর রাখা হয়েছে গ্রামগুলির উপর। প্রসঙ্গত, জাতীয় নাগরিক পঞ্জীর তালিকা থেকে প্রথমে বাদ পড়েছিল ৪১ লক্ষ মানুষের নাম। সেই সংখ্যা চূড়ান্ত তালিকায় অনেকটাই কমে ১৯ লক্ষ ৬ হাজার হয়েছে।