Date : 2021-05-06

“খোলামেলা পোশাকই ধর্ষণের কারণ” বলে তরুণীকে মার প্রৌঢ়ার…

ওয়েব ডেস্ক: বছর ২৫এর এক তরুণীকে “খোলামেলা পোশাকই ধর্ষণের কারণ” বলার অভিযোগ উঠল এক প্রৌঢ়া মহিলার বিরুদ্ধে। এমন কি সেই তরুণীকে মারার অভিযোগ উঠল তার বিরুদ্ধে।

পোশাকই ধর্ষণের কারণ, এমন একটি মানসিকতার থেকে আজও পিছু হঠেনি সাধারণ মানুষ। দক্ষিণ কলকাতার লর্ডসের মোড়ে ঘটেছে এই ঘটনাটি। ওই তরুণি বনগাঁর বাসিন্দা।

বর্তমানে যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতকোত্তর স্তরে পড়াশোনা করছেন৷ পড়াশোনার জন্য  আপাতত কলকাতাতেই থাকেন তিনি৷ বর্তমানে দক্ষিণ কলকাতার যোধপুর পার্কে একটি হস্টেলে থাকেন তিনি৷

গত বৃহস্পতিবার দুপুর দেড়টা নাগাদ লর্ডসের মোড়ে কিছু প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র কিনতে বেরিয়েছিলেন ওই তরুণী৷ তাঁর পরনে ছিল একটি শর্টস৷ সেই সময় এক অপরিচিত মহিলা হঠাৎই তরুণীর তাঁর পোশাক নিয়ে নানা কথা শোনান৷ মহিলা এমনও বলেন, ‘‘মেয়েরা এভাবে শরীর দেখিয়ে বেড়ায় বলেই ছেলেদের ধর্ষণের আসক্তি বাড়ছে৷’’

একথা শুনেই রেগে যান উচ্চশিক্ষিতা তরুণী৷ তিনি বিরোধিতা শুরু করেন৷ মহিলা তাতে আরও রেগে গিয়ে তরুণীকে সপাটে চড় কষান। তখন তরুণী মহিলাকে বলেন, ‘‘আপনি যা বলছেন তা ভুল৷ মারধর করা আসলে অপরাধ৷’’ কিন্তু মহিলা কোনও কথা না শুনে আবারও তরুণীকে মারধর করতে শুরু করেন৷ এই ঘটনাবশত উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে এলাকায়। লোকজন জড়ো হওয়ায় পালিয়ে যান সেই বৃদ্ধা। আক্রান্ত তরুণী ফিরে আসেন মেসে, ও তারপরই লেক থানায় শ্লীলতাহানির অভিযোগ দায়ের করেন ওই মহিলার বিরুদ্ধে। তবে এখনও তাঁর খোঁজ পায়নি পুলিশ৷