Date : 2019-09-19

ধর্ম শিখ ও পোশাক “অদ্ভুত”, রেস্তোঁরায় প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা জানানো হল পরমকে…

ওয়েব ডেস্ক: সারা দেশের মানুষের মধ্যে জাত, ধর্ম, এইধরনের বিষয়ে নিয়ে দন্দ্ব চলেই আসছে যুগ যুগ ধরে। মানুষকে “মানুষ” বলে না ভেবে এই ধরনের বিশয়ের প্রেক্ষিতে বিচার করা প্রথা আজকের নয়।

তবে দিল্লির মত একটি জায়গায় যে জাত ও পোশাকের দোহাই দিয়ে একজন শিখকে কোনো রেস্তোঁরায় ঢ়ুকতে দেওয়া হবে না, তা কল্পনারও অতীত। তবে এমন ঘটনারই সাক্ষী হলেন দিল্লিবাসী পরম সাহিব ও তাঁর কিছু বন্ধুরা। উই কুতুব নামক একটি বার কাম রেস্তোঁরায় পরমকে ঢ়ুকতে দেওয়া হয় না, কারণ তিনি শিখ, তাঁর অগোছালো দাড়ি এবং অদ্ভুত জামাকাপড় পরার ধরনের জন্য।

এছাড়াও পরমের সঙ্গে থাকা মহিলা বন্ধুদের সঙ্গে খারাপ ব্যবহার করা হয়েছে বলেও অভিযোগ তাঁর। যথারীতি ঘটনাটির সারমর্ম তিনি প্রায় সঙ্গে সঙ্গেই শেয়ার করেন নিজের সোশ্যাল মিডিয়া হ্যান্ডেলে। পরবর্তীতে যদিও সেই রেস্তোঁরা থেকে ক্ষমা চাওয়া হয় পরমের কাছে।

View this post on Instagram

Sincere Apology From The Team – WE Qutub!

A post shared by WE QUTUB (@wequtub) on

তাঁদের উদ্দেশ্য করে একটি লেখাও পোস্ট করেন রেস্তোঁরা কর্তৃপক্ষ। তার উত্তরে পরম জানান যে, ক্ষমার বদলে ১০০ জন গরীব বাচ্চাদের খাওয়াতে। আর খেয়াল রাখতে যেন এমন ঘটনার সাক্ষী ভবিষ্যতে আর কোনো ব্যাক্তিকেই হতে না হয়।