Date : 2019-11-19

রবিবার দুপুরের আগেই গতি পরিবর্তন করছে ‘বুলবুল’, জেনে নিন কোথায় আছড়ে পড়বে….

কলকাতা: আশঙ্কা সত্যি করে আগেই নিম্নচাপে পরিনত হয়েছিল বুলবুল, তবে তার গতিপথ নিয়ে সন্দেহ ছিল আবহাওয়াবিদদের। এবার কপালে চিন্তার ভাঁজ ফেলে গতিপথ পরিবর্তন করে বসল ‘বুলবুল’। হাওয়া অফিসের পূর্বাভাস, রবিবার দুপুরের আগেই পশ্চিমবঙ্গের সাগরদ্বীপ ও বাংলাদেশের খেপুপাড়ার মাঝে আছড়ে পড়তে পারে ঘূর্ণিঝড় বুলবুল। বৃহস্পতিবার বিকেলর পর হাওয়া অফিসের তরফে জানানো হয়েছিল ঘূর্ণিঝড় বুলবুল ক্রমশ দুর্বল হতে শুরু করেছে, বরিবার দুপুরের পর তা অতি সক্রিয় নিম্নচাপে পরিনত হয়ে বাংলাদেশ পশ্চিমবঙ্গ সংলগ্ন উপকূলের উপর আছড়ে পড়তে পারে। শুক্রবার যদিও সম্পূর্ণ উল্টো হয়ে যায় সব পূর্বাভাস। হাওয়া দফতরের পক্ষ থেকে শেষ পাওয়া খবর, বার বার গতিপথ পরিবর্তন করছে বুলবুল।

তবে সক্রিয় নিম্নচাপের বদলে বুলবুল এখন অতি সক্রিয় ঘূর্ণিঝড় হয়ে কলকাতা থেকে প্রায় ৭০০ কিমি দূরে পশ্চিমবঙ্গ ও বাংলাদেশ উপকূলের মধ্যবর্তীস্থানে অবস্থা করছে। আজ বিকেল থেকেই রাজ্যে ঝোড়ো হাওয়ার পূর্বাভাস আবহাওয়া দফতরের। ঝোড়ো হাওয়ার গতিবেগ থাকবে ঘণ্টায় ৪০ থেকে ৬০ কিলোমিটার। আগামিকাল সকালে দিক পরিবর্তন করে ঘূর্ণিঝড় কিছুটা শক্তি ক্ষয় করে ৯০ কিলোমিটার বেগে আছড়ে পড়তে পারে উপকূলে। আজ থেকে বৃষ্টি শুরু হওয়ার কথা দিঘা সংলগ্ন সমুদ্র উপকূলবর্তী অঞ্চলে। সমুদ্র সকাল থেকেই উত্তাল থাকায় মৎসজীবীদের সমস্ত ট্রলার ফিরিয়ে আনা হয়েছে, মাছ ধরতে যাওয়ার উপরও নিষেধজ্ঞা জারি করা হয়েছে।

ধেয়ে আসছে ‘বুলবুল’, আছড়ে পড়তে পারে সোমবার

প্রবল ঝড়ের পূর্বাভাস থাকায় দিঘা থেকে সরিয়ে নিয়ে আসা হচ্ছে পর্যটকদের। পাশাপাশি প্রবল বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে কলকাতা, হুগলি, হাওড়া, দুই ২৪ পরগণা, দুই মেদিনীপুরে। সঙ্গে ৪০ থেকে ৫০ কিমি বেগে হাওয়া বইতে পারে। তবে রবিবার এই গতিবেগ বেড়ে উপকূল সংলগ্ন অঞ্চলে ১০০ কিমি গতিবেগ হতে পারে। জলোচ্ছাসের কারণে দক্ষিণ ২৪ পরগণার অপেক্ষাকৃত নিচু অঞ্চলে জল জমতে পারে। জেলায় জেলায় ইতিমধ্যেই বৃষ্টি শুরু হয়েছে।উপকূলবর্তী অঞ্চলে বইছে ঝড়ো হাওয়াও। নবান্নের তরফে বিপর্যয় মোকাবিলার জন্য প্রশাসনিক ভাবে সমস্ত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে বলেই জানানো হয়েছে।