Date : 2019-11-18

দূষণ আর অরণ্য নিধনের জের, বিলুপ্তির পথে প্রজাপতি…

ওয়েব ডেস্ক: উন্নয়ন আর মানব সভ্যতার বিকাশ একের পর এক ধ্বংস করেছে অরণ্য, জীব বৈচিত্রের। পরিবেশ আদালত বা বিশ্ব পরিবেশ সম্মেলনগুলিতে বেশ কিছু ব্যবস্থা গ্রহণ করলেও জীব বৈচিত্রের নির্বিচারে ধ্বংসের কোন শাস্তি হয় না। ব্রিটেনের সোশ্যাল মিডিয়ায় নেটিজেনদের ওয়ালে–ওয়ালে। নেপথ্যে বিলুপ্ত হতে বসাহাই ব্রাউন ফ্রিটিলারি প্রজাপতিরা। যারা বিলোপের পথে হাঁটছে এক ও একমাত্র মানুষের দায়িত্বজ্ঞানহীনতায়।

একটি গবেষণার মাধ্যমে জানা গেছে ১৯৯৮ সাল থেকে ২০১৪ পর্যন্ত ব্রিটেনে বসন্তকালের তাপমাত্র বেড়েছে প্রায় ৫ ডিগ্রি। এ জন্য দায়ী ব্রিটেনবাসী করা পরিবেশ দূষণ। ফলে ওই প্রজাপতির বসতি ব্রিটেনের উত্তরাঞ্চল থেকে ধীরে ধীরে বিলুপ্ত হতে শুরু করেছে। অথচ এটাই ছিল তাদের প্রধান বাসস্থান।

যেসব বিরল প্রজাতির প্রজাপতির উপর বিশ্বায়নের কোপ পড়েছে, তাদের মধ্যে সবথেকে বেশি প্রভাবিত হয়েছে হাই ব্রাউন ফ্রিটিলারি প্রজাপতি। এদের প্রজননের সময় কমে এসেছে, উপরন্ত পিউপা থেকে বেড়োনোর পর তাদের খাদ্যতালিকা অনুযায়ী খাদ্যের সরবরাহ না থাকায় তারা বিপর্যস্ত হচ্ছে।

জীববিজ্ঞানের অধ্যাপক ড. ক্যালাম ম্যাকগ্রেগরের মতে, সাধারণত প্রজাপতিরা উষ্ণতাপ্রিয় হয়ে থাকে। তাই তাদের বেশিরভাগ প্রজাতি পৃথিবীর উষ্ণতা বেড়ে যাওয়ার কারণে উত্তরের উষ্ণাঞ্চলের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে। যদিও সমস্ত জীবজন্তুদের মধ্যে এখনও বিপুল পরিমাণে এই সচেতনা তৈরী হয়নি। জলবায়ু পরিবর্তনের সঙ্গে রয়েছে মথ, প্রজাপতির প্রজনন সম্পর্ক। জীবজগতে এভাবে বহু প্রজাতি বিলুপ্ত হয়ে গেছে শুধুমাত্র অবহেলার কারণে। একমাত্র সেই প্রজাতিরাই বংশবিস্তার করতে পারছে, যারা লোকচক্ষুর আড়ালে রয়েছে। এমনভাবে চলতে থাকলে আর বেশিদিন নেই, যখন সমস্ত জীবজগত বিলুপ্তির মহাপ্রস্থানের পথে চলতে থাকবে।