Date : 2021-02-27

কোনটি উল্টে গেছে, কোনটি দেখতে ডিজনিল্যান্ডের মতো! ৫ টি অদ্ভুত গির্জার ছবি দেখুন….

ওয়েব ডেস্ক:- আজ বড়দিন, সারা বিশ্বজুড়ে পালিত হচ্ছে প্রভু যিশুখ্রীষ্টের জন্মদিন। উৎসবের আমেজে গির্জায় গির্জায় ভিড় জমিয়েছেন অসংখ্য মানুষ। মোমবাতি জ্বালিয়ে চলছে প্রার্থনা। সারি সারি বেঞ্চের সামনে দাঁড়িয়ে আছেন প্রভু যিশুর মূর্তি। এমন গির্জা দেখে আমরা সবাই অভ্যস্ত। তবে বিশ্বজুড়ে এমন অনেক গির্জা রয়েছে যা আর চারটে স্বাভাবিক গির্জার থেকে দেখতে একেবারে আলাদা। বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তে ছড়িয়ে ছিটিয়ে রয়েছে অদ্ভুত আকৃতির সব গির্জা। একটির প্রবেশ পথ খুঁজে পাওয়া মুশকিল তো অন্যটির কারুকার্য আপনাকে অবাক করে তোলে। আজ বড়দিনে চলুন ঘুরে দেখা যাক সেই সমস্ত অদ্ভুত গির্জাগুলি।

১ (আইসল্যাণ্ড) দ্য চার্চ অফ হ্যালগ্রিমার

আইসল্যান্ডের চারটি সুউচ্চ আশ্চর্য সৌধের মধ্যে অন্যতম লুথেরান প্যারিশ চার্চ। এর উচ্চতা ২৪৪ ফুট। দীর্ঘ ৩৮ বছর ধরে একটু একটু করে তৈরি হয়েছে গির্জাটি। ১৯৪৫ সালে গির্জা তৈরি শুরু হয়েছিল। শেষ হয় ১৯৮৬ সালে। এই অনবদ্য স্থাপত্যের নেপথ্যের কারিগর স্যামুয়েলসন

২ (কলম্বিয়া) লাস ল্যাজাস ক্যাথিড্রাল

স্থানীয়দের মতে, গুয়েতারা নদীর উপর ভার্জিন মেরির অদ্ভুত ভাবেই আবির্ভাব ঘটেছে। পাহাড়ের উপর অসাধারণ এই চার্চটি তৈরি হল কিভাবে ভাবতেই অবাক লাগবে। ১৯৬১ সালে এই চার্চটি তৈরি হয়।

৩ (কানাডা) ডেভিস টু রুট আউট ইভিল

এর যেমন অদ্ভুত নাম তেমন অদ্ভুত এর গঠন। সম্পূর্ণ গির্জাটি যেন ঝড়ে উল্টে গেছে। ঈশ্বরের প্রার্থনার স্থান এমন উল্টো হওয়ার অনেক বিতর্ক হয়েছে। আপত্তি উঠেছিল অনেক। বিতর্ক এড়াতে ২০০৮ সালে ভ্যাঙ্কোভার থেকে ক্যালগরিতে স্থানান্তরিত হয়েছিল গির্জাটি।

(রাশিয়া) সেন্ট ব্যাসিলস ক্যাথিড্রাল

রাশিয়ার এই চার্চ দেখলে মনে হবে আপনি ডিসনি ওয়ার্ল্ড-এ এসে পড়েছেন। রাশিয়ার রাজধানীতে এই বাসিল ক্যাথিড্রাল চার্চ অন্যতম আকর্ষণ। ১৫৬১ সালে সম্ভবত এই চার্চ তৈরি করা হয়। কথিত আছে, রেড স্কোয়ারে অবস্থিত এই চার্চ তৈরি করার পর স্থপতিকে অন্ধ করে দেওয়া হয়েছিল। যাতে এই গির্জা পৃথিবীর আর কোথাও সে তৈরি করতে না পারে।

(আর্জেন্টিনা) দ্য গ্রিন চার্চ

গির্জার বিশেষত্ব হল, সব দেওয়াল পুরো বাঁশ গাছের পাতা দিয়ে ঢাকা। যার ফলে গোটা গির্জা সবুজে ঢাকা। এই সবুজ সৌন্দর্য্য গির্জাটিকে অনন্য করে তুলেছে।