Date : 2024-02-20

ঠিক যেন সিনেমার মতো….. বাস্তবের অ্যাসিড আক্রান্ত লক্ষ্মী আর অলোকের প্রেমের “ছপক”…

ওয়েব ডেস্ক:- কথায় আছে ভালোবাসার কাছে রূপ, সৌন্দর্য্য কিছুই নয়। অ্যাসিডে ঝলসে গিয়েছে মুখ। নাক নেই, কান নেই, এমনকি মুখের ভাঁজও হারিয়ে গিয়েছে। শুধু মুখ নয় ক্ষত-বিক্ষত হয়ে গিয়েছে মন। তবুও লড়াই করার শক্তি শেষ হয়নি। বাস্তব জীবনে অ্যাসিড আক্রান্ত লক্ষ্মী আগরওয়ালের জীবনের লড়াই উঠে এসেছে বলিউডের ছবি ‘ছপক’-এ। তবে এই লড়াইয়ের যাত্রা পথে তার সঙ্গী হয়েছিলেন সমাজ কর্মী অলোক দীক্ষিত। তবে শুধু ভালোবাসাতেই শেষ হয়নি তাদের সম্পর্ক। লক্ষ্মীকে বিয়ে করেছিলেন অলোক। তাদের একটা মেয়েও রয়েছে।

লক্ষ্মী ও আলোকের সেই ভালোবাসার মুহূর্তগুলিই উঠে এল ‘ছপক’-এর ‘নোক ঝোঁক’ গানে। যেখানে বেশ সুন্দর ভাবে ফিল্ম কায়দাতেই দৃশ্যায়িত হয়েছে লক্ষ্মী ও আলোকের প্রেমের গল্প। গানটির কথা গুলজারের লেখা। আর সুর দিয়েছেন সিদ্ধার্থ মাধবন। ছবিতে লক্ষ্মীর ভূমিকায় দীপিকা পাড়ুকোন ও আলোক দীক্ষিতের ভূমিকায় বিক্রান্ত মাসে অভিনয় করেছেন।

গানের দৃশ্য শেয়ার করে ছবির নায়িকা ও মুখ্য চরিত্র দীপিকা পাদুকোনে ও বিক্রম লিখেছেন, যেখানে ভালোবাসা থাকে সেখানে আর সব কিছুই ফিকে।

এত কিছুর পরেও ছবি নিয়ে তৈরি হয়েছে বিতর্ক। ‘ছপক’ তৈরির সময় বাস্তব জীবনে অ্যাসিড আক্রান্ত লক্ষ্মী আগরওয়াল নিজের জীবনী পর্দায় তুলে ধরার জন্য ১৩ লক্ষ টাকা দাবি করেন ফিল্ম প্রযোজনা সংস্থার কাছে।

এরপর মেঘনা গুলজার লক্ষ্মীর সঙ্গে হাত মিলিয়ে ছবি তৈরির কাজ শুরু করেন। সেই অনুযায়ী সিনেমার তৈরির পর ট্রেলারও মুক্তি পেয়ে যায়৷ কিন্তু এরপরই শুরু হয় তরজা৷ জানা যাচ্ছে, ১৩ লক্ষ নিয়ে নাকি খুশি নন অ্য়াসিড আক্রান্ত লক্ষ্মী আগরওয়াল৷ তিনি আরও বেশি দাবি করছেন বলে খবর৷ ফলে বর্তমানে লক্ষ্মী আগরওয়ালের সঙ্গে টিম ছপকের জোর টানাপোড়েন শুরু হয়েছে৷