Date : 2020-10-27

ভারতীয় নোটে জিহাদি স্লোগান? পিআইএলে অবাক সুপ্রিম কোর্ট

ওয়েব ডেস্ক : সুপ্রিম কোর্টে পেশ করা একটি জনস্বার্থ মামলা গোটা দেশজুড়ে চাঞ্চল্য সৃষ্টি করেছে। অভিযোগে বলা হয়েছে, বিধি ভঙ্গ করে রিজার্ভ ব্যাংক অফ ইন্ডিয়ার (আরবিআই) জম্মু শাখা ৩০ কোটি টাকার এমন কারেন্সি নোট হাতবদল করেছে যাতে বিচ্ছিন্নতাবাদী কাশ্মীরি স্লোগান এমবস করা আছে।এই অভিযোগে অমৃতসরের বাসিন্দা সতীশ ভরদ্বাজ মঙ্গলবার শীর্ষ আদালতে পাবলিক ইন্টারেস্ট লিটিগেশন (পিআইএল) পেশ করেন।

সতীশ ভরদ্বাজের আবেদনের প্রেক্ষিতে ভারতের প্রধান বিচারপতি এসএ বোবড়ে, বিচারপতি বিআর গাভাই এবং বিচারপতি সূর্য কান্ত সলিসিটর জেনারেল তুষার মেহতার কাছে জানতে চান, এই ইস্যুতে কেন্দ্রের এজেন্সিগুলি কোনও পদক্ষেপ নিয়েছে কি না।

তাঁরা সলিসিটার জেনারেলকে এ কথাও জিজ্ঞাসা করেন, ব্যাপারটা কি বিচারবিভাগ দেখবে, না কি বিষয়টি খতিয়ে দেখার জন্য কেন্দ্রের উদ্দেশে বিজ্ঞপ্তি জারি করবে? বিচারপতিদের প্রশ্নের উত্তরে সলিসিটার জেনারেল তুষার মেহতা বলেন, সরকার অবশ্যই বিষয়টি দেখবে। এর পর সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতিদের বেঞ্চ সাময়িকভাবে ওই জনস্বার্থ মামলার শুনানি মুলতুবি রাখার সিদ্ধান্ত নেন। বলেন, সরকার কী করবে তা জানাক। তার পর বিষয়টি তাঁরা দেখবেন।

২০১৩ সালের ১৯ আগস্ট প্রকাশিত ‘টাইমস অফ ইন্ডিয়া’-র একটি রিপোর্ট উদ্ধৃত করে আবেদনকারী সতীশ ভরদ্বাজ সুপ্রিম কোর্টে তাঁর আবেদন পেশ করেন। রিপোর্টে বেরিয়েছিল, ভারতের কারেন্সি নোটের উপর বিচ্ছিন্নতাবাদী স্লোগানের ছাপ দিয়ে শ্রীনগরে চালানো হচ্ছে। পিটিশনে সতীশ ভরদ্বাজ বলেছেন, খোঁজ নিয়ে তিনি জানতে পারেন, ৩০ কোটি টাকার খুঁতওয়ালা/ ত্রুটিপূর্ণ নোট রিজার্ভ ব্যাংক অফ ইন্ডিয়ার জম্মু রিজিওনাল ব্র্যাঞ্চ অফিসে জমা দিয়ে বিনিময়ে আসল কারেন্সি নোট তোলা হয়েছে। সতীশ ভরদ্বাজের অভিযোগ, এই কর্ম করার জন্য নির্দেশ দিয়েছিলেন আরবিআইয়ের জম্মু শাখার তৎকালীন রিজিওনাল ডিরেক্টর। অমৃতসরবাসী সতীশ ভরদ্বাজ তাঁর জনস্বার্থ মামলায় বলেছেন, জিহাদি-বিচ্ছিন্নতাকামী স্লোগান এমবস করা ৩০ কোটি টাকার নোটের বান্ডিলগুলির জিম্মাদার ছিল একটি কাশ্মীরি বিচ্ছিন্নতাবাদী গোষ্ঠী। বিনিময়ে আরবিআইয়ের জম্মু শাখা থেকে তারা আসল ভারতীয় কারেন্সি নোট তুলে নেয়।