Date : 2020-12-05

ভোরের আলোয় চিরনিদ্রিত কলকাতার “রাতপরী”

কলকাতা: সত্তরের দশকের রাতের শহরের ঝলমলে রঙিন আলো নিভে গেল। বৃহস্পতিবার ভোর পাঁচটা নাগাদ কলকাতার বিখ্যাত ক্যাবারে ডান্সার মিস শেফালি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করলেন। মৃত্যুকালে কিডনির সমস্যায় ভুগছিলেন তিনি। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৭৭ বছর। সোদপুরে নিজের বাড়িতেই শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন এই ক্যাবারে সেনসেশন। ফিরপোজ হোটেল থেকে পার্ক স্ট্রিট, গ্র্যান্ড হোটেলে গানের সুরে নাচ করতে করতে আরতি দাস হয়ে উঠেছিলেন মিস শেফালি। মিস শেফালির জনপ্রিয়তা ছড়িয়ে পড়েছিল হলিউড থেকে টলিউড সর্বত্র।

সত্যজিৎ রায়ের প্রতিদ্বন্দ্বী, বহ্নিশিখা, পেন্নাম কলকাতা সহ একাধিক ছবিতে দেখা গিয়েছে তাঁকে। সম্প্রতি একটি ওয়েব সিরিজে কলকাতার ছয়ের দশকের পটভূমিকায় ফুটে উঠবে মিস শেফালির জীবন কাহিনী। আরতি দাস ওরফে মিস শেফালির ভূমিকায় অভিনয় করবেন কঙ্কনা সেনশর্মা।

একসময়ের বিখ্যাত ক্যাবারে ডান্সার মিস শেফালি কালের নিয়ম মেনেই চলে গিয়েছিলেন পর্দার আড়ালে।

ম্যান ভার্সেস ওয়াইল্ড-এ মোদীর পর অংশ নিলেন রজনীকান্ত

দীর্ঘদিন নিজের কর্মজীবন থেকে সরে গিয়েছিলেন এক সময়ের রাতের কলকাতার সেনসেশন মিস শেফালি। বার্ধক্য আর জ্বরায় আক্রান্ত হয়েছিল শরীর। কাজের অভাবে হতাশায় ভুগতেন তিনি। পারিবারিক সূত্রের খবর, কিছু দিন আগে অসুস্থ হয়ে পড়ার কারণে দক্ষিণ কলকাতার একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল মিস শেফালিকে। কয়েক দিন আগে বাড়ি ফিরেছিলেন তিনি। সুস্থ হয়ে উঠছিলেন তিনি। সামান্য হাঁটাচলাও করতেন। কিন্তু আজ ভোরে হঠাৎই মারা গেলেন তিনি।