Date : 2020-10-20

তেলেনিপাড়া আপাতত শান্ত, ইন্টারনেট বন্ধই থাকছে, জানাল চন্দননগর পুলিশ কমিশনারেট

হুগলির ভদ্রেশ্বরের তেলেনিপাড়ার ঘটনায় ইতিমধ্যে ১২৫জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। উদ্ধার হয়েছে প্রচুর বোমা। চন্দননগর ও শ্রীরামপুর মহকুমায় ইন্টারনেট পরিষেবা আপাতত বন্ধই রাখা হবে। ১৭ মে সন্ধে ৬টার পরে নেট পরিষেবা চালু থাকবে না প্রত্যাহার হবে তা পরে জানানো হবে বলে শুক্রবার চন্দননগর পুলিশ কমিশনারেটের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে। ডেপুটি পুলিশ কমিশনার সুব্রত গঙ্গোপাধ্যায় জানিয়েছেন, তেলেনিপাড়া আপাতত শান্ত।

ভদ্রেশ্বরের ঘটনায় যাতে সোশাল মাধ্যমে প্ররোচনামূলক কিছু না ছড়ান হয় ও গুজব না ছড়ায় তা নিশ্চিত করতেই হুগলির ওই দুটি মহকুমার নেট পরিষেবা বন্ধ রাখা হয়েছে। তাতে অবশ্য উত্তরপাড়া, কোন্নগর, রিষড়া, শ্রীরামপুর, চুঁচুড়া, চন্দননগরের বাসিন্দারা বেজায় অসুবিধায় পড়েছেন। লকডাউন চলায় এমনিতেই গৃহবন্দি থাকতে হচ্ছে। তার ওপর নেট বন্ধ থাকায় অনলাইনে পড়াশোনা থেকে শুরু করে ওয়ার্ক ফ্রম হোম শিকেয় উঠেছে।

এরই মধ্যে ফেসবুকে সাম্প্রদায়িক পোস্ট করার অভিযোগে সুতপা মাইতি নামে এক মহিলাকে গ্রেফতার করা হয়েছে। শুক্রবার সোনারপুর থেকে তাকে গ্রেফতার করে চন্দননগর পুলিশ কমিশনারেটের পুলিশ। ধৃতের বিরুদ্ধে অভিযোগ, তিনি নাকি পুলিশ আধিকারিকদের বিরুদ্ধে খারাপ মন্তব্য করেছেন।