Date : 2021-01-19

প্রেমিকাকে খুনের সাজা, ঐতিহাসিক ওলেগ সোকোলভের ১২ বছর কারাদণ্ড

অতীত নিয়ে তাঁর কাজ কারবার। নামকরা ঐতিহাসিক হিসাবে তাঁর সুনাম রয়েছে। প্রেমিকাকে খুনের দায়ে সেই রুশ ঐতিহাসিক ওলেগ সোকোলভেরই সাড়ে বারো বছর কারাদণ্ড হল। ২০১০ সালে রহস্যজনকভাবে মারা যান সোকোলভের প্রেমিকা তথা ছাত্রী আনাস্তাসিয়া ইয়েসচেঙ্কো। সেন্ট পিটার্সবার্গের মাইকা নদীর কাছে মত্ত অবস্থায় উদ্ধার করা হয় সোকোলভকে। তাঁর ব্যাগ থেকে উদ্ধার হয় একটি কাটা হাত। তদন্তে প্রমাণিত হয় সেই হাত তাঁরই ছাত্রী ইয়েসচেঙ্কোর। সাড়া জাগানো সেই মামলাতেই দোষী সাব্যস্ত হন সোকোলভ। শনিবার ঘোষিত হয় সাজা। প্রেমিকাকে খুনের দায়ে সোকোলভকে সাড়ে বারো বছর কারাদণ্ড দেয় সেন্ট পিটার্সবার্গের আদালত।

নেপোলিয়নের সময়ে ফরাসি ইতিহাস নিয়ে চর্চায় সুনাম রয়েছে সোকোলভের। তাঁর সেই চর্চা তাঁকে প্রভূত সম্মানও এনে দেয়। সেন্ট পিটার্সবার্গ বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক হিসাবেও তাঁর নামডাক রয়েছে। সেই অধ্যাপকের সঙ্গেই প্রেমের সম্পর্কে জড়ান বছর চব্বিশের আনাস্তাসিয়া ইয়েসচেঙ্কো। অসমবয়সি দুই নরনারীর প্রেমের কথা অনেকেই জানতেন। ২০১০ সালে সম্পর্কে চিড় ধরে। কোনও কারণে মতপার্থক্য দেখা দেয় দুজনের মধ্যে। তীব্র কথা কাটাকাটি হয়। এরপরই রাগের মাথায় মত্ত অবস্থায় প্রেমিকা তথা ছাত্রীকে খুন করেন অধ্যাপক। প্রমাণ লোপাট করতে ইলেকট্রিক করাত দিয়ে প্রেমিকার হাত, পা, মাথা শরীর থেকে আলাদা করে ফেলেন। সেই সব অঙ্গ প্রত্যঙ্গ লুকিয়ে ফেলতে একটি ব্যাগে ভরেন। মত্ত অবস্থায় পৌঁছে যান মাইকা নদীর তীরে। উদ্দেশ্য ছিল নদীতে ব্যাগটি ফেলে দেওয়া। কিন্তু ধরা পড়ে যান। ব্যাগ থেকে মেলে একটি কাটা হাত।

এরপর গত ১০ বছর ধরে মামলা এগিয়েছে। তদন্তে নতুন নতুন সূত্র উঠে আসতে থাকে। চলতি বছরে