Date : 2021-07-29

দমবন্ধ হয়ে যাচ্ছে তাঁর, রাজ্যসভা থেকে ইস্তফা তৃণমূল সাংসদ দীনেশ ত্রিবেদীর

এ যেন বিনা মেঘে বজ্রপাত। রাজ্যসভার সদস্য পদ থেকে ইস্তফা দিলেন তৃণমূল সাংসদ দীনেশ ত্রিবেদী। শুক্রবার সংসদ চলাকালীন নাটকীয়ভাবে পদত্যাগের কথা ঘোষণা করেন তিনি। পদত্যাগের কারণ হিসাবে দীনেশ বলেছেন, ‘মানুষের জন্য কাজ করতে পারছিলাম না। রাজ্যে চলা হিংসা গণতন্ত্রের জন্য বিপজ্জনক। মাতৃভূমির জন্যই আজ আমরা এই জায়গায়। দলের নিয়মশৃঙ্খলা অবশ্যই মানব। কিন্তু আমার দমবন্ধ হয়ে যাচ্ছিল।’ সে কারণেই বাধ্য হয়ে পদত্যাগ করলেন বলে জানিয়েছেন প্রাক্তন রেলমন্ত্রী দীনেশ ত্রিবেদী। তাঁকে রাজ্যসভায় পাঠানোর জন্য তৃণমূল কংগ্রেসকেও ধন্যবাদ জানিয়েছেন দীনেশ। পদত্যাগ ঘোষণার কিছুক্ষণ পরেই রাজ্যসভার চেয়ারম্যান ভেঙ্কাইয়া নাইডুকে নিজের পদত্যাগপত্র জমা দেন তিনি। বহুদিনের সহকর্মীর পদত্যাগের খবরে স্বাভাবিকভাবেই দুঃখপ্রকাশ করে তৃণমূল সাংসদ সৌগত রায় বলেছেন, ‘এটা দুর্ভাগ্যজনক। আমি দুঃখিত। উনি ক্ষুব্ধ ছিলেন জানতাম, কিন্তু পদত্যাগ করবেন বুঝিনি। দল ব্যাপারটা আলোচনা করে দেখবে।’ দীনেশের পদত্যাগের খবর মিলতেই তাঁর বিজেপিতে যাওয়ার জল্পনা ছড়িয়েছে। সেই জল্পনায় আরও বাতাস দিয়েছেন বিজেপির কেন্দ্রীয় পর্যবেক্ষক কৈলাস বিজয়বর্গীয় এবং রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ। দুজনেই দু-হাত মেলে বিজেপিতে স্বাগত জানিয়েছেন দীনেশকে। দুজনেরই বক্তব্যের নির্যাস, তৃণমূলে ভালো লোকদের জায়গা নয়। তবে দীনেশকে কটাক্ষ করতে ছাড়েননি। দমবন্ধ হওয়া ও এতদিন পরে কেন তাঁর অন্তরাত্মা জেগে উঠল তা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন তিনি। ২০১৪ সালে লোকসভা নির্বাচন বিপুল ভোটে জয়ী হয়ে সাংসদ হয়েছিলেন দীনেশ ত্রিবেদী। কিন্তু ২০১৯ সালে বিজেপির অর্জুন সিংয়ের কাছে হেরে যান তিনি। এরপর দীনেশকে রাজ্যসভার টিকিটে সংসদে পাঠান তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেই মেয়াদ শেষ হতে আরও ৫ বছর বাকি রয়েছে। তা সত্ত্বেও দীনেশের দমবন্ধ হওয়া রাজনীতির ময়দানে ঝড় তুলে দিয়েছে।