Date : 2021-10-22

বিতর্কের কেন্দ্রে মায়ানমার

ওয়েব ডেস্ক : রোম যখন পুড়ছিল, তখন সম্রাট নিরো বেহালা বাজাচ্ছিলেন। অতি বিখ্যাত এই মিথকে ফের মনে করাল মায়ানমার। গত শনিবার একদিনে অন্তত ১১৪ জন মানুষকে গুলি করে মেরেছে সেদেশের সেনা। মৃতদের মধ্যে একটা বড় অংশ ছিল নাবালকরা। এই ভয়াবহ ঘটনার পরেই রাতে এক রাজকীয় নৈশভোজের আয়োজন করেছিলেন জুন্টা প্রধান মিন আং লেইং! ওইদিন ছিল ‘আর্মড ফোর্সেস ডে’। সেই উপলক্ষেই আয়োজিত হয়েছিল ওই পার্টি। সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়েছে ওই পার্টির নানা ছবি। যাতে দেখা গিয়েছে রেড কার্পেটের উপর দিয়ে হেঁটে পার্টিতে যোগ দিতে আসা সেনানায়কদের পরনে বো-টাই, পদক খচিত জ্যাকেট।

যেদিন সেনার গুলিবৃষ্টি এমন নারকীয় হত্যালীলা ঘটেছিল, সেদিনই এই জৌলুসময় পার্টির আয়োজন দেখে হতভম্ব নেটিজেনরা। উল্লেখ্য, ১ ফেব্রুয়ারি আচমকাই দেশের শাসনক্ষমতা নিজেদের হাতে তুলে নেয় মায়ানমার সেনা। পালটা ক্যু বা সেনা অভ্যুত্থানের প্রতিবাদে পথে নামে দেশের আমজনতা। কোথাও তারা বিক্ষোভ দেখাচ্ছে, তো কোথাও আবার শান্তিপূর্ণ অবস্থান করছে। রাজধানী নাইপিদাও থেকে শুরু করে ইয়াঙ্গন পর্যন্ত প্রায় সমস্ত বড় শহরে রাস্তায় সেনা অভ্যুত্থানের প্রতিবাদে সরব হয়েছে হাজার হাজার মানুষ।

এই আন্দোলনের কণ্ঠরোধ করতে শুরু থেকেই নির্বিবাদে গুলি চালানোর অভিযোগ উঠেছে জুন্টার বিরুদ্ধে। তবে সব রেকর্ড ভেঙে গিয়েছে গত শনিবার। ওইদিনের বিপুল মৃত্যুস্রোতে বিস্মিত গোটা বিশ্ব। সব মিলিয়ে গত দু’মাসে মায়ানমার সেনার হাতে পাঁচশোর বেশি মানুষের মৃত্যু হয়েছে।