Date : 2021-09-25

ইজরায়েলের সুরক্ষা কবচ আয়রন ডোম !

ওয়েব ডেস্ক : ইজরায়েল ও হামাসের মধ্যে ১১দিন ধরে চলা রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ চুক্তি থামে স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার মধ্যরাতে। ইজরায়েল মিডিয়ার রিপোর্ট অনুযায়ী, সুরক্ষাবাহিনীকে চিঠি লিখে ওই সংঘর্ষবিরতির অনুমতি দেন ইজরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেঞ্জামিন নেতানইয়াহু। ইজরায়েলের প্রতিরক্ষা দফতর বলছে, মাত্র এক সপ্তাহে ইজরায়েলকে লক্ষ্য করে ৩,১৫০টি রকেট ছুঁড়েছে প্যালেস্তাইনের জঙ্গি সংগঠন হামাস। তার ৯০ শতাংশই আটকে দিয়েছে ইজরায়েলের প্রতিরক্ষা আচ্ছাদন আয়রন ডোম।

যুদ্ধবিরতি লঙ্ঘনের জেরে ইজরায়েল, প্যালেস্তাইন এবং প্রতিবেশী দেশগুলির আকাশে ঘন ঘন রকেট উড়তে দেখা গিয়েছে। মাত্র এক সপ্তাহে ইজরায়েলকে লক্ষ্য করে ৩,১৫০টি রকেট ছুঁড়েছে প্যালেস্তাইনের জঙ্গি সংগঠন হামাস। হামলায় প্রাণ হারিয়েছে ১২জন ইজরায়েলি। পাল্টা ইজরায়েলের জবাবে প্রাণ হারিয়েছেন ২৩২জন প্যালেস্তানীয়। ইজরায়েলের প্রতিরক্ষা দফতরের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, এই রকেট হানার প্রায় ৯০ শতাংশই রুখে দিয়েছে তাদের মিসাইল ডিফেন্স সিস্টেম আয়রন ডোম।

একাধিক ভিডিওতে দেখা গিয়েছে উড়ে আসা সারি সারি রকেট থমকে যাচ্ছে নির্দিষ্ট একটি বিন্দুতে। আসলে একধরণের প্রতিরক্ষামূলক আচ্ছাদনে ঢেকে দেওয়া হয়েছে ইজরায়েলের আকাশ । এই অদৃশ্য ক্ষমতাসম্পন্ন দেওয়ালই হল আয়রন ডোম। রকেট, মর্টার বা অন্য যে কোনও অস্ত্র তাতে ধাক্কা মারলেই নিষ্ক্রিয় হয়ে যাবে।

কি এই আয়রন ডোম?

আকাশপথ প্রতিরক্ষায় তৈরি আয়রন ডোম আসলে কয়েকটি ব্যাটারি নেটওয়ার্ক দিয়ে তৈরি। প্রত্যেকটি নেটওয়ার্কের নিজস্ব র্যা ডার, কম্যান্ড অ্যান্ড কন্ট্রোল সেণ্টার ও লঞ্চার রয়েছে। এর জন্য ইজরায়েলে রয়েছে মোট ১০টি ব্যাটারি । প্রত্যেকটি ৬০ স্কোয়ার কিলোমিটার পর্যন্ত নিরাপত্তা দেয়।

কবে ইজরায়েলে আয়রন ডোম ইনস্টল হয় ?

গাজা প্রদেশ নিয়ে উত্তেজনার জেরে ২০১১ সালে আয়রন ডোম ইন্সটলে ছাড়পত্র দিয়েছিল ইজরায়েল সরকার। ২০০৬ সালে লেবানন যুদ্ধ এবং তারপর হেজবোল্লা ও হামাস জঙ্গিরা ইজরায়েলের উত্তর-প্রান্তে ৪ হাজারের বেশি রকেট ছোঁড়ে। ৪৪ জন ইজরায়েলি প্রাণ হারিয়েছিলেন হামলায়। প্রায় আড়াই লক্ষ মানুষ ঘর ছাড়া হয়েছিলেন। তারপর থেকেই দেশের উত্তর প্রান্তের নিরাপত্তা আঁটোসাঁটো করতে আয়রন ডোম ইনস্টল করে ইজরায়েল। বছরের সব সময়েই কার্যকর থাকে এই আয়রন ডোম। তবে নির্দিষ্ট একটি সহনশীলতা মাত্রা অতিক্রম করলে এর কার্যকারিতা নষ্ট হতে থাকে।

কীভাবে সুরক্ষা দেয় আয়রন ডোম?

প্রথমে উড়ে আসা রকেটের গতি এবং অভিমুখ নির্ধারণ করে আয়রন ডোম। তারপর একটি ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ করা হয়। যা আকাশেই রুখে দেয় হামলাকারী রকেটকে। কিন্তু এই প্রতিরক্ষামূলক ব্যবস্থা শর্ট রেঞ্জ রকেটেই কার্যকরী। সেক্ষেত্রে রকেটের গতি হবে ৫০০ থেকে ১০০০ মাইল প্রতি ঘণ্টা।

তবে প্রশ্ন উঠছে, আয়রন ডোম থাকতেও কি করে ইজরায়েলে হামলা চালাল হামাস? আসলে আয়রন ডোমকে দুর্বল করতে শতাধিক বা হাজার হাজার রকেট চালিয়েছিল জঙ্গি সংগঠনটি। এছাড়াও টানেল ব্যবহার করে ইজরায়েলে অস্ত্রশস্ত্র পাঠিয়েছিল জঙ্গিরা। মূলত আমেরিকার দেওয়া ১৬ বিলিয়ন সাহায্যেই আয়রন ডোম ব্যবহার করে ইজরায়েল। হামাসের হামলার জেরে ক্ষতিগ্রস্ত ইজরায়েলি আয়রন ডোম মেরামতির আশ্বাস দিয়েছেন আমেরিকার প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন, ইজরায়েল-প্যালেস্টাইনের সংঘর্ষে আন্তর্জাতিক বাজারে বাড়বে আয়রন ডোমের চাহিদা। ওয়াল স্ট্রীট জার্নালের রিপোর্ট অনুযায়ী, আগামীদিনে সংযুক্ত আরব আমিরশাহী ও ভারত কিনতে পারে সিস্টেমটি।