Date : 2021-09-26

করোনা আক্রান্তদের দিকে সাহায্যের হাত সেরিব্রাল পালসিতে আক্রান্ত পূরবীর

করোনা আক্রান্তদের দিকে সাহায্যের হাত সেরিব্রাল পালসিতে আক্রান্ত পূরবীর

ওয়েব ডেস্ক : দশম শ্রেণীর ছাত্রী পূরবী দত্ত। কৃষ্ণনগরের পূরবী জন্মের কয়েকদিন পর থেকেই সেরিব্রাল পালসিতে আক্রান্ত। নিজে সুস্থ স্বাভাবিক জীবন যাপন না করতে পারলেও, করোনা আক্রান্তদের দিকে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছে পূরবী। তার জমানো টাকা তুলে দিলো রেড ভলেন্টিয়ার্সদের হাতে।

নদিয়ার কৃষ্ণনগরের চুনারিপাড়ার বাসিন্দা পরেশ দত্ত। ছাত্রাবস্থায় থেকেই বামপন্থী আন্দোলনের সঙ্গে যুক্ত তিনি। পেশায় স্কুল শিক্ষিকা স্ত্রী বনানী কুন্ডুও বামপন্থী মনস্ক। তাঁদের একমাত্র মেয়ে পূরবী জন্মের কয়েক দিন পর থেকেই সেরিব্রাল পালসিতে আক্রান্ত। নিয়মিত চিকিৎসার মধ্যে থাকতে হয় তাকে। রোগের কারণে ছেলেবেলা উপভোগ করতে পারেনি পূরবী।

একা থাকতে থাকতে গাছ, পাখিদের সঙ্গে বন্ধুত্ব পূরবীর কবিতার ঝাঁপি খুলে দেয়। এখন অবশ্য ইউটিউব চ্যানেলের মাধ্যমে তার পরিচিতির পরিধি অনেকটাই বেড়েছে। দশম শ্রেণীর ছাত্রী পূরবী জানায়, সোশ্যাল মিডিয়ায় রেড ভলেন্টিয়ার্স দের কাজ দেখে সহযোগিতা করার ইচ্ছা হয় তার। করোনা আক্রান্তদের পাশে দাঁড়াতে নিজের জমানো টাকা দান করে পূরবী। শারীরিকভাবে সক্ষম না হওয়ায় রেড ভলেন্টিয়ার্স এর দাদা দিদিদের হাতে সেই টাকা তুলে দেয় সে।

মেয়ের এই কর্মকান্ড দেখে খুশি পরেশ বাবু ও বনানী দেবী। তাঁরা বরাবরই চেয়েছিলেন তাঁদের মেয়ে বড় মনের মানুষ হোক। এই দুঃসময়ে মেয়ের সহযোগিতার মানসিকতা দেখে গর্বিত তাঁরা। পরেশ বাবু ও বনানী দেবী চান, পূরবী আগামীতে আরো বড় মনের মানুষ হোক এবং কবিতা নিয়ে এগিয়ে যাক।

রেড ভলেন্টিয়ার্স এর দাদা-দিদিরা পূরবীকে কুর্নিশ জানিয়েছেন। পূরবীর দেওয়া টাকা আক্রান্ত সেবায় কাজে লাগাবেন তাঁরা। যে কোন সাহায্য পূরবীর পাশে থাকার অঙ্গীকার করেছেন রেড ভলেন্টিয়ার্স এর দাদা-দিদিরা। ছোট বোনের এই উদ্যোগ তাদের কাজে আরো গতি আনবে বলে আশাবাদী রেড ভলেন্টিয়ার্স।