Date : 2021-09-25

এবার এক ক্লিকেই মালদার আম পৌঁছে যাবে আপনার বাড়ির দরজায়

ওয়েব ডেস্ক : ফলের রাজা আম। আর মালদার আমের কথা আলাদা করে বলার অপেক্ষা রাখে না। এবার এক ক্লিকেই মালদার সেই আম পৌঁছে যাবে আপনার বাড়ির দরজায়। লক্ষণভোগ, ফজলি, ল্যাংড়া, হিমসাগর যা চাইবেন তাই মিলবে অনলাইনে। কোন বেসরকারি নয়, সরকারি উদ্যোগেই চালু হয়েছে এই পরিষেবা। তাও আবার ক্যাশ অন ডেলিভারি।

হাতের মুঠোয় মালদার আম। কেন্দ্রীয় সরকারের তত্ত্বাবধানে মালদার আম বিক্রি শুরু হয়েছে অনলাইনে। জৈব সার ব্যবহার করে উৎপাদিত মালদার বিখ্যাত লক্ষণভোগ, ফজলি, হিমসাগর, ল্যাংড়া সহ বিভিন্ন প্রজাতির আম এক ক্লিকেই এবার পৌঁছে যাবে ঘরের দুয়ারে। তাও আবার ক্যাশ অন ডেলিভারি। কেন্দ্রীয় সরকারের আম্র গবেষণা দপ্তর ও রাজ্য সরকারের সুফল বাংলার যৌথ উদ্যোগে চালু হয়েছে এই পরিষেবা।

এই প্রোজেক্টে মাঠে নেমে কাজ করছেন মালদার আদিবাসী মহিলারা। এই কাজে যুক্ত স্বনির্ভর গোষ্ঠীর সদস্য এজিনা সরেন, এলিজা ফেতরারা জানান, কাজ না থাকায় সংসারে অভাব ছিল। সরকার কাজ দিয়েছে। নতুন করে স্বপ্ন দেখতে শুরু করেছেন তাঁরা।

কেন্দ্রীয় গবেষণা কেন্দ্রের মালদায় কর্মরত বিজ্ঞানী অন্তরা দাস জানান, মূলত আদিবাসী মহিলাদের স্বনির্ভর করে তুলতেই এই উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। দুটি স্বনির্ভর গোষ্ঠী এই কাজে যুক্ত রয়েছে। বাজারে আমের মূল্যের সঙ্গে এই আমের মূল্যের খুব একটা হেরফের হবে না। মহিলাদের পারিশ্রমিকের মূল্য হিসেব করে আমের দাম নির্ধারণ হবে। এই আম সম্পূর্ণ কেমিকেলমুক্ত। ফলে সরকারি অ্যাপ থেকে আম কিনলে খাঁটি আমের স্বাদ পাবেন ক্রেতারা।

মালদার আদিবাসী মহিলাদের স্বনির্ভর করে তুলতে তৈরি করা হয়েছে অনলাইন অ্যাপ। সেই অ্যাপে কোন প্রজাতির আম কত পরিমাণে নেবেন, তা আপলোড করলেই বুকিং হয়ে যাবে। তারপর সেই আম পৌঁছে যাবে নির্দিষ্ট ঠিকানায়। তবে আপাতত মালদাবাসীই এই পরিষেবা পাবেন, আগামী দিনে রাজ্যজুড়ে পরিষেবা সরিয়ে দেওয়ার পরিকল্পনা রয়েছে বলে জানা গিয়েছে।