Date : 2021-09-20

আবহাওয়া পরিবর্তনে উদ্বেগজনক রিপোর্ট রাষ্ট্রসংঘের

আবহাওয়া পরিবর্তন নিয়ে উদ্বেগজনক রিপোর্ট দিল রাষ্ট্রসংঘ। ১৯৫ সদস্য বিশিষ্ট আবহাওয়া বদল সংক্রান্ত প্যানেল তাঁদের ষষ্ঠ মূল্যায়নের রিপোর্ট দিয়েছে। গোটা বিশ্বের জলবায়ু ইতিমধ্যে খতিয়ে দেখেছে প্যানেলটি। তাতে বেশ কিছু পরিবর্তন লক্ষ্য করেছেন বিশেষজ্ঞরা। তার মধ্যে অন্যতম সমুদ্রের জলস্তর বৃদ্ধি। যা ক্রমেই উদ্বেগজনক দিকে এগোচ্ছে।

এই পরিস্থিতিকে মানবতার পক্ষে  সংকটজনক বলে ব্যাখ্যা করেছেন রাষ্ট্রসংঘের সেক্রেটারি জেনারেল অ্যান্টোনিও গুতেরেস।  প্যানেলের রিপোর্ট অনুযায়ী, খুব কম সময়ে উত্তপ্ত হয়ে উঠছে পৃথিবী। এভাবে চলতে থাকলে ২০৩০ সালে বিশ্বের তাপমাত্রা ১.৫ডিগ্রি সেলসিয়াস বাড়বে। ২০১৮ সালের দেওয়া পূর্বাভাস অনুযায়ী, এই পরিমাণ উত্তাপ বৃদ্ধির কথা ছিল আরও ১০ বছর পর ।    

সমুদ্রের জলস্তরও ব্যাপক হারে বাড়ছে। পরিসংখ্যান বলছে, ১৯০১ থেকে ১৯৭১ সালের মধ্যে বছরে ১.৩মিলিমিটার করে বেড়েছে সমুদ্রের জলস্তর। ২০১৬ থেকে ২০১৮ সালে তা দ্বিগুণ বেড়ে হয়েছে ৩.৭  মিলিমিটার। ১৯০১ থেকে ২০১৮ সাল পর্যন্ত ০.২০ মিলিমিটার পর্যন্ত বেড়েছে জলস্তর।  ১৯৫০ সাল থেকে স্থলভাগে ক্রমে বেড়েছে তাপপ্রবাহ। অন্যদিকে শীতল বায়ু এবং তরঙ্গ কমতে শুরু করেছে। জলবায়ু পরিবর্তনের মূলে মানুষকেই দায়ী করা হয়েছে রাষ্ট্রসংঘের তরফে।  আবহাওয়া বদল সংক্রান্ত প্যানেলের রিপোর্টে গ্লোবাল ওয়ার্মিংয়ের হটস্পট হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে শহরগুলিকে। জলাশয় এবং গাছপালা না থাকায়, আরও বেশি উত্তপ্ত হয়ে উঠছে শহরাঞ্চলগুলি।