Date : 2021-10-19

মাত্র ৮ বছরের ছোট্ট ছেলের কাঁধে সংসার চালানোর বড় দায়িত্ব

স্মৃতি বিশ্বাস : জানি,এই খবরটা পড়ার পর অনেকেই শিশুশ্রম নিয়ে কথা বলবেন। কিন্তু যার বাবা মা দুজনেই দৃষ্টিহীন, রোজগারে অক্ষম, সেই পরিবারের শিশুর কাছে, শিশুশ্রমটা আইনত অপরাধ হলেও বেঁচে থাকার একমাত্র উপায়। খিদের জালা যে কী, সেটা মাত্র আট বছর বয়সেই হাড়ে হাড়ে টের পেয়েছে গোপাল কৃষ্ণ। অন্ধ্রপ্রদেশের চিত্তুরের বাসিন্দা গোপালকৃষ্ণ। বাড়িতে দৃষ্টিহীন মা-বাবা ছাড়াও আছে দুই ছোট ভাইবোন। স্বাভাবিক ভাবেই মা বাবার অক্ষমতায় সংসারের জোয়াল গোপাল মানে বাড়ির বড় ছেলের কাঁধেই চেপেছে। সংসারের চাপ আর বাড়ির 5টি পেট তো বোঝেনা যে গোপাল মাত্র 8 বছর বয়সী এক শিশু।

অভাবের কাছে গোপালও হার মানেনি। অক্ষরে অক্ষরে পালন করে চলেছে চোট্ট কাঁধে বড় ছেলের দায়িত্ব। খেলনা নয়,সবুজ মাঠে দাপাদাপি নয়, এখন তার সঙ্গী ই-রিক্শার স্টিয়ারিং। চিত্তুরের অলি-গলি থেকে বড় রাস্তায় ই-রিক্শা চালাতে দেখা যায় ছোট্ট গোপালকে।তার রোজগারেই চলে 5জনের সংসার।গোপালের এই দায়িত্ব বোধ দেখে অবাক তার প্রতিবেশীরাও। এখানেই শেষ নয়, সংসারের চাপ সামলে গোপাল স্কুলেও যায়, পড়াশোনাও করে। দিন কয়েক আগে স্কুলের পোশাক পরে রিক্শা চালানোর সময় গোপালের ছবি তোলে এক ব্যক্তি। তিনি গোপালকে জিজ্ঞাসা করেন কেন তাকে রিক্শা চালাতে হচ্ছে। তখনই গোপাল জানায় বাড়ির দায়িত্বের কথা।

প্রায়ই খবর হয়, মা বাবাকে রাস্তায় ফেলে দিয়ে সন্তানের চলে যাওয়ার কথা।মা বাবার প্রতি সন্তানের অমানবিক আচরনের কথা প্রায়ই শুনি আমরা। আট বছরের গোপাল এই সমাজে এই আবহে এক উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত।

শিশুশ্রম রুখতে যারা কাজ করেন তাদেরও ভাবাবে গোপালের জীবন সংগ্রাম ।