Date : 2021-10-19

Kunal vs Locket Tweet : টুইট যুদ্ধে কুনাল লকেট। জল্পনার জন্ম

সঞ্জু সুর, রিপোর্টার : দুই দলের দুই রাজ্য সাধারণ সম্পাদক। তাঁদের টুইট যুদ্ধে জমে উঠলো সোমবারের বারবেলা। শুরুটা করেছিলেন তৃণমূল কংগ্রেসের রাজ্য সাধারণ সম্পাদক কুনাল ঘোষ। ভবানীপুর বিধানসভার উপনির্বাচনে প্রচারের শেষ দিন বারবেলায় তিনি টুইট করে ধন্যবাদ জানালেন বিজেপির রাজ্য সাধারণ সম্পাদক তথা সাংসদ লকেট চট্টোপাধ্যায় কে। টুইটে কুনাল ঘোষ লেখেন,”ভবানীপুরে প্রচার না করার জন্য স্টার ক্যাম্পেনার @me_locket কে ধন্যবাদ ও অভিনন্দন। বিজেপির পক্ষ থেকে অনেকবার আবেদন করা সত্ত্বেও আপনি আসেন নি। আপনি যেখানেই থাকুন, একজন বন্ধু হিসাবে আপনার সাফল্য কামনা করি।” এরপরেই টুইটে মোক্ষম ও ইঙ্গিতপূর্ণ কথা লেখেন কুনাল ঘোষ। “পৃথিবীটা খুব ছোটো।

আশা করি আপনার রাজনৈতিক জীবনের শুরুর দিনগুলো আবার ফিরে আসুক।” লকেট চট্টোপাধ্যায় তাঁর রাজনৈতিক জীবন শুরু করেছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের হাত ধরে তৃণমূল কংগ্রেসে। টুইটের এই শেষ অংশে সেটাই ইঙ্গিত করেন কুনাল ঘোষ। ফলে জল্পনাও ছড়িয়ে পরে তৎক্ষণাৎ। তাহলে কি বাবুল সুপ্রিয়-র পর আরো এক বিজেপি সাংসদ এবার ঘাসফুলের দিকে! এমনিতেই কয়েকদিন ধরে লকেট কে একটা জল্পনা চলছে বিজেপির অন্দরেই। সদ্য শেষ হ‌ওয়া বিধানসভা নির্বাচনে তাঁকে প্রার্থী করা নিয়ে খুব একটা খুশি ছিলেন না লকেট। অন্ততঃ বিজেপি সূত্রে তেমনটাই খবর। এদিকে বিধানসভা নির্বাচনে তিনি তো জেতেন ই নি, পাশাপাশি তাঁর সাংসদ এলাকার সাতটি বিধানসভাতেই বিজেপি খারাপ ফল করে। বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব অবশ্য লকেট চট্টোপাধ্যায় কে উত্তরাখণ্ডের সহ প্রভারী করেছে। কিন্তু বাংলা থেকে দুরে সরিয়ে দেওয়া নিয়েও নাকি ঘনিষ্ঠ মহলে নিজের অসন্তোষের কথা জানিয়েছিলেন লকেট।

জল্পনার উপর জল্পনা চলাকালীন কুনাল ঘোষের টুইট যে বিজেপির অস্বস্তি কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে তা বোঝা যায় কিছুক্ষণের মধ্যে। কুনাল ঘোষের করা টুইট কে ট্যাগ করে লকেট ও ট্যুইট করেন। তিনি লেখেন, “আপনি বরং ভবানীপুরের দিকে নজর দিন যাতে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় হেরে না যান।” সঙ্গে সঙ্গেই লকেটের টুইটের জবাব আসে কুনালের আরো একটি টুইটে। দ্বিতীয় টুইটে লকেট চট্টোপাধ্যায় কে ট্যাগ করে কুনাল ঘোষ লেখেন, “চিন্তা করবেন না। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় অনেক বেশি মার্জিন নিয়েই জিতবেন। আপনিও নিশ্চয়ই তাই চান। আমি জানি আপনাকে আপনার দলের হয়ে লিখতেই হবে। তোবু আমি আপনাকে ধন্যবাদ জানাই যে আপনি আপনার উত্তরে আপনার দলের প্রার্থীর নামটুকু পর্যন্ত লেখেন নি।” টুইটের শেষে আবার নতুন জল্পনার জন্ম দিয়ে কুনাল ঘোষ লিখেছেন,”কহি পে নিগাহেঁ, কহি পে নিশানা।” কুনাল ঘোষের এই টুইটের জবাব অবশ্য লকেট চট্টোপাধ্যায় এখনো দেন নি। তবে, তাঁকে নিয়ে যে জল্পনার জন্ম হয়েছে তার নিরসন কি ভবানীপুরের উপনির্বাচনের পরেই অবসান হবে ? এই প্রশ্ন‌ই এখন ঘুরপাক কাছে তৃণমূল বিজেপি দুই শিবিরেই।