Date : 2021-09-20

মনোনয়নে সর্বধর্ম সমন্বয়। মমতার পাশে ইসমত,মীরাজ, নিসপাল সিং

সঞ্জু সুর রিপোর্টার : তিনি বরাবরই বলেন আমি না হিন্দু, না মুসলিম। আমি সবার আগে মানুষ। তাই মানুষের জন্য কাজ করি। তিনি তাঁর নামের শেষে উপাধিও লেখেন না। শুধু লেখেন “মমতা”। সরকারি কাগজপত্রে তিনি “মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়”। রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী। ব্যস এইটুকুই। স্বাভাবিকভাবে তাঁর মনোনয়ন পত্র জমা দেওয়ার সময় যে সব ধর্মের প্রতিনিধিত্ব থাকবে তা বলাই বাহুল্য। শুক্রবার আলিপুর সার্ভে বিল্ডিং এ তৃণমূল কংগ্রেসের প্রার্থী হিসাবে মনোনয়ন জমা দেওয়ার সময় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের প্রস্তাবক হিসাবে দেখা গেল ভিন্ন ভিন্ন ধর্মের চার প্রতিনিধিকে।

বিধানসভা বা লোকসভা নির্বাচনে প্রার্থী হতে গেলে প্রার্থীর নাম প্রস্তাব করতে হয় সেই কেন্দ্রের ভোটার এমন কাউকে। সাধারণত প্রথম সারির রাজনৈতিক দলের ক্ষেত্রে দলীয় কর্মিরাই প্রস্তাবক হিসাবে থাকেন। কিন্তু এই বিষয়েও মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বরাবরই একটু অন্যরকম ভাবেন। তিনি যখন নন্দীগ্রাম আসনে প্রার্থী হয়েছিলেন সেই সময় তাঁর নামের প্রস্তাবক ছিলেন জমি আন্দোলনের তিন নেতা ও এক শহীদের স্ত্রী। স্বদেশ দাস, আবদুল সামাদ বা মহাদেব বাগ অথবা শহীদের স্ত্রী সুষমা মাইতি-র নাম প্রস্তাবক হিসাবে রাখার মাধ্যমে তৃণমূল সুপ্রিমো আসলে নন্দীগ্রামের জমি আন্দোলনের স্মৃতিকেই মনে করতে চেয়েছিলেন এবং নন্দীগ্রামে প্রচার পর্বে সেটা তিনি বলেও ছিলেন। সেই ধারা বজায় রেখেই ভবানীপুর কেন্দ্রের উপনির্বাচনে মনোনয়ন জমা দিলেন তৃণমূল সুপ্রিমো।

এখানে তাঁর নামের প্রস্তাবকদের তালিকা দেখলেই বোঝা যাবে আসলে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ভবানীপুরের সব মানুষকে ছুঁতে চেয়েছেন। সব ধর্মের প্রতিনিধিদের নিয়েই মনোনয়ন জমা দিলেন তিনি। তাঁর নামের প্রথম প্রস্তাবক ইসমত হাকিম, রাজ্যের মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিমের স্ত্রী। দ্বিতীয় শিখ সম্প্রদায়ের প্রতিনিধি নিসপাল সিং রাণে। তৃতীয় নাম মীরাজ শাহ। ভবানীপুর এডুকেশন সোসাইটির কর্তাব্যক্তি মীরাজ শাহ গুজরাটি সম্প্রদায়ের মানুষ। আর বাবলু সিং হলেন বিহারী সম্প্রদায়ের প্রতিনিধি।

বিরোধীদের যদিও দাবি ভবানীপুর কেন্দ্রের ভিন্ন ভাষাভাষী ও সম্প্রদায়ের মানুষের ভোটে ভাগ বসানোর লক্ষে মুখ্যমন্ত্রীর ছেলে ভোলানো প্রয়াস। এপ্রসঙ্গে অবশ্য রাজ্যের মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিমের বক্তব্য, “এটা তো নতুন নয়, ২০১৬ সালেও এরাই মুখ্যমন্ত্রীর নাম প্রস্তাবক ছিলো। এবার শুধু মীরাজ শাহ তালিকায় নতুন।”