Date : 2021-12-03

মমতার মনোনয়ন বাতিল ! তথ্য গোপনের অভিযোগ বিজেপি-র

সঞ্জু সুর, রিপোর্টার : ফের একবার মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের মনোনয়ন বাতিলের দাবি জানালো বিজেপি। মঙ্গলবার ভবানীপুর কেন্দ্রের রিটার্নিং অফিসারের কাছে তৃণমূল প্রার্থীর মনোনয়ন বাতিলের দাবি জানিয়ে অভিযোগ জমা দিলেন বিজেপি প্রার্থী প্রিয়াঙ্কা টিবরেওয়ালের মুখ্য নির্বাচনী এজেন্ট সজল ঘোষ।১৫ মার্চ, ২০২১। নন্দীগ্রাম কেন্দ্রে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের মনোনয়ন বাতিলের দাবিতে ইলেকশন কমিশনের দ্বারস্ত হন শুভেন্দু অধিকারী। সেই সময় শুভেন্দু অধিকারীর বক্তব্য ছিলো তৃণমূল প্রার্থী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তাঁর যে হলফনামা ইলেকশন কমিশনে জমা দিয়েছেন, সেখানে তিনি(মমতা) তথ্য গোপন করেছেন। শুভেন্দু অধিকারী দাবি করেছিলেন, আসামে পাঁচ থেকে ছয়টি থানায় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে ফৌজদারি মামলা রয়েছে, যে কথা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের হলফনামায় উল্লেখ করা হয় নি।

এই তথ্য গোপনের কারণে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের মনোনয়ন বাতিল করা হোক। তখন অবশ্য কমিশন বা আদালত শুভেন্দু অধিকারীর দাবিকে মান্যতা দেয় নি। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তৃণমূল প্রার্থী হিসাবেই নন্দীগ্রামে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন।

১৫ মার্চের পর ১৪ সেপ্টেম্বর।ছয় মাস পর আবার এক‌ই ঘটনা। এবার ভবানীপুর কেন্দ্র। দাবি এক‌ই। তথ্য গোপনের অভিযোগে বাতিল করা হোক মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের প্রার্থী পদ। মঙ্গলবার বিজেপি প্রার্থীর মুখ্য নির্বাচনী এজেন্ট বলেন, “ওনার বিরুদ্ধে আসামের একাধিক থানায় মামলা রয়েছে। হলফনামায় বলতে হয় ওনার বিরুদ্ধে কোনো ফৌজদারি মামলা আছে কি নেই। উনি সেটা এড়িয়ে গিয়েছেন। উনি লিখেছেন not applicable। এটা সত্যের অপলাপ।” সজল ঘোষ আরো বলেন, “যদি ইলেকশন কমিশন আমাদের দাবিকে মান্যতা না দেয়, তাহলে আমরা আদালতের দ্বারস্থ হবো।”

এই বিষয়ে নন্দীগ্রামে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের লড়াইয়ের অন্যতম সৈনিক রাজ্যের প্রাক্তণ মন্ত্রী পূর্ণেন্দু বসু বলেন, “মমতা বিরোধীতার জন্য বিজেপি খড়কুটো যা পাচ্ছে তাই আঁকড়ে ধরার চেষ্টা করছে। নন্দীগ্রামের সময় তো বিজেপি হাইকোর্টে মুখের উপর জবাব পেয়ে গিয়েছিলো। এবার ও তাই হবে। আসলে এরা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কে আটকাতেই যা ইচ্ছা তাই করছে। যেন তেন প্রকারেণ ভোট আটকাবার চেষ্টা। কিন্তু কিছু লাভ হবে না।”
তথ্য গোপন নিয়ে বিজেপির দাবি বা তৃণমূলের পাল্টা উত্তর, আসলে সিদ্ধান্ত নেবে সেই নির্বাচন কমিশন। ফলে বল এখন কমিশনের কোর্টে।