Date : 2021-09-20

নয়া আতঙ্ক ফুসফুসে সমস্যা

পৌষালী সেনগুপ্ত, নিউজ ডেস্ক : হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুর ঘটনা সাময়িক কালে দেখা গেছে।আর তাতে অল্পবয়সীদের মৃত্যুর ঘটনাও আমরা দেখেছি। প্রমাণ পরিচিত সিদ্ধার্থ শুক্লার আচমকাই মৃত্যু। এর কারণ হিসাবে আমাদের খাদ্যাভ্যাস শুধু নয় রোজকার জীবন যাপনও অনেকাংশেই দায়ী বলে মনে করছেন চিকিতসকেরা।তবে হালে এর সঙ্গে যুক্ত হল ফুসফুসের সমস্যাও।সম্প্রতি একটি গবেষণাপত্রে দাবি করা হয়েছে, ফুসফুসের ক্ষমতা কমতে থাকলে আচমকা হৃদ্‌রোগ বা ‘সাডেন কার্ডিয়াক অ্যারেস্ট’-এর আশঙ্কা বাড়ে। শুধু তাই নয়, এই সমস্যায় আক্রান্ত হতে পারেন এমন মানুষও, যাঁদের হৃদ্‌যন্ত্রের কোনও সমস্যা আগে ছিল না।

গবেষণায় দাবি করা হয়েছে, আপাত ভাবে সুস্থ, হৃদ্‌রোগের কোনও লক্ষণ নেই এমন মানুষও যে কোনও সময়ে ‘সাডেন কার্ডিয়াক অ্যারেস্ট’-এ আক্রান্ত হতে পারেন। এর কোনও পূর্বাভাসই আগে দেওয়া সম্ভব হত না। এখন কিছুটা হলেও সম্ভব। যদি নিয়মিত ফুসফুসের পরীক্ষা করানো হয় এবং দেখা যায়, তার ক্ষমতা কমছে, তা হলে তাঁদের ক্ষেত্রে আচমকা হৃদ্‌রোগের আশঙ্কা বাড়ছে বলে ধরে নেওয়া যায়।এই গবেগষণার ফলে আগামী দিনে অনেকেই আচমকা হৃদ্‌রোগে আক্রান্ত হওয়ার বিষয়ে সচেতন হতে পারবেন বলেও দাবি করা হয়েছে গবেষণায়।

তাই চিকিত্সকদের মতে এই হার্ট বা ফুসফুসের সমস্যা থেকে মুক্তির একমাত্র পথ হল রোজকার জীবনের কিছুটা পরিবর্তন আর বাইরের খাবার যতটা সম্ভব কম খাওয়া। রোজ অল্প হলেও শরীর চর্চা করা। কিন্তু এমন নয় যা আমাদের সুস্থ শরীরকে ব্যস্ত করে তুলতে পারে।সঠিক সময় ঘুম, খাওয়া এগুলো জরুরী বলে মনে করছেন চিকিত্্সকেরা।