Date : 2021-10-22

AITC Goa : জোট নয়, একাই লড়বো। হুঙ্কার অভিষেকের।

সঞ্জু সুর, রিপোর্টার : তৃণমূল কংগ্রেসের সর্ব ভারতীয় সাধারণ সম্পাদক হওয়ার পর প্রথম সাংবাদিক সম্মেলনে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছিলেন এবার বাংলার বাইরে অন্য রাজ্যে যাবে তৃণমূল কংগ্রেস। তবে শুধু দুই একটা সাংসদ বা বিধায়ক পেতে নয়, তৃণমূল কংগ্রেস যাবে সেই রাজ্যে ক্ষমতা দখলের লক্ষ্যে। অভিষেকের সেই কথামতো ইতিমধ্যেই উত্তর পূর্বের দুই রাজ্য ত্রিপুরা ও আসামে পা বাড়িয়েছে তৃণমূল। ত্রিপুরায় তো রীতিমতো বেশ ভালো সংগঠন ও তৈরি হয়ে গিয়েছে। 2023 এ সেখানে বিধানসভা নির্বাচনে বেশ ভালো ফল করার ব্যাপারে যথেষ্ট আত্মবিশ্বাসী তৃণমূল নেতৃত্ব। তবে তার আগে 2022 এর ফেব্রুয়ারি মাসে পশ্চিম ভারতের আর একটি ছোটো রাজ্য গোয়ার বিধানসভা নির্বাচন ই এখন তৃণমূল কংগ্রেসের পাখির চোখ।

বুধবার গোয়ার দুই বারের প্রাক্তণ মুখ্যমন্ত্রী লুইজিনহো ফ্যালেইরো কে পাশে নিয়ে অভিষেক জানিয়ে দিলেন “গোয়ায় তৃণমূল কংগ্রেস একাই লড়বে।” অভিষেকের কথায় পরিষ্কার গোয়ার বিজেপি সরকার কে উৎখাত করতে আপ (AAP) বা অন্য কোনো দলের সঙ্গে কোনো জোট করবে না তৃণমূল। 40 আসন বিশিষ্ট গোয়া বিধানসভায় বিজেপি বা তার সহযোগী দলগুলো এখনো কিছুটা অ্যাডভান্টেজ পজিশনে রয়েছে। বিরোধী দল হিসাবে কংগ্রেস ওই রাজ্যে পরিচিত। পরিচিতি রয়েছে ‘আপ-এর ও। কিন্তু অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের বক্তব্য, “কংগ্রেস কোনো কাজ করে না। ঘরের আরামে থাকতেই তারা পছন্দ করে। কিন্তু আমরা চুপ করে বসে থাকতে পারি না। আমরা বিজেপি কে হারাতে চাই।” অভিষেক আরো বলেন, “গত সাত বছর ধরে আমরা বিজেপিকে যেখানে পেয়েছি হারিয়েছি। কিন্তু কংগ্রেস তো গত সাত বছর ধরে বিজেপির কাছে হেরেই চলেছে।” লুইজিনহো ফ্যালেইরো সহ গোয়ার এক ঝাঁক কংগ্রেস নেতাকে দলে যোগদান করিয়ে অভিষেক তখন আত্মবিশ্বাসী। বলছেন তো গোয়ায় ক্ষমতা দখল করবেন। কিন্তু গোয়া বিধানসভা নির্বাচন খুব বেশি দেরি নেই। মাত্র চার পাঁচ মাস সময়ের মধ্যে সম্পূর্ণ নতুন একটা রাজ্যে ক্ষমতা দখল করাটা কি দিবাস্বপ্ন নয় ?

তৃণমূল কংগ্রেসের প্রতীক চেনাতে চেনাতেই তো ভোট শেষ হয়ে যাবে। এই বিষয়ে অবশ্য সদ্য দলে যোগ দেওয়া প্রবীণ গোয়ানীজ লুইজিনহো ফ্যালেইরো মনে করেন, মমতা বন্দ্যোপাধায় ই ফ্যাক্টর। তাঁর মতোই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও কংগ্রেসের আদি নেতা।আসমুদ্র হিমাচল মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় চেনে। বিজেপির বিরুদ্ধে লড়াইতেও তিনি এই মূহুর্তে দেশে এক নম্বরে। ফলে প্রতীক কোনো সমস্যা হবে না। এদিকে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় ও জানিয়ে দিয়েছেন পুজোর পরেই গোয়া যাবেন নেত্রী স্বয়ং। রাজনৈতিক কর্মসূচিতে যাবেন অভিষেক ও। প্রসঙ্গত এই মূহুর্তে সে রাজ্যে ঘাঁটি গেড়েছেন ডেরেক ও’ব্রায়েন, প্রসূন বন্দ্যোপাধ্যায়, মনোজ তিওয়ারি রা। সূত্রের খবর, আগামি দু একদিনের মধ্যে বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের বেশকিছু মুখ সেখানে তৃণমূলের ঝান্ডার তলায় আসতে চলেছে। ফলে তৃণমূল কংগ্রেস যে বেশ জোড়ের সঙ্গেই আরব সাগরের তীরের এই ছোট রাজ্যে পা রাখছে তা বলাই যায়।