Date : 2021-09-20

সরকারি হাসপাতালে মেলেনি সুরাহা , টক টু মেয়র এ মিলল সমাধান

স্নেহাশীষ চট্টোপাধ্যায় রিপোর্টার : ২০২০সালের ৩রা ডিসেম্বর শুভায়ন মল্লিকের স্ত্রী পৃথা গুপ্ত মল্লিক আরজিকর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে একটি কন্যা সন্তান জন্ম দেয় ।পৃথা কে হাসপাতাল ছাড়ার আগে সন্তানের জন্ম শংসাপত্র দেয়নি R, G,KAR মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে কতৃপক্ষ। সন্তানের জন্মের শংসাপত্র চেয়ে আবেদন করেন হাসপাতাল কতৃপক্ষের কাছে। এক বছর কেটে গেলেও সন্তানের শংসাপত্র হাতে পাননি। আরজিকর মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে চিঠি দিয়ে সন্তানের জন্ম শংসাপত্র চেয়েও তিনি পাননিবলে অভিযোগ। নিরুপায় মল্লিক দম্পতি কলকাতা পৌরসভার মেয়র এর শরণাপন্ন হন ওই ব্যক্তি।

শনিবার সরাসরি মেয়রকে বলো তে ফোনে ওই ব্যক্তি জানান সন্তান জন্মানোর এক বছর হয়ে গেল এখনও সন্তানের বার্থ রেজিস্ট্রেশন সার্টিফিকেট তিনি হাতে পাননি,। এ বিষয়ে কলকাতা পুরসভা কোনো সুরাহার পথ দিতে পারেন কিনা ? বিষয়টি জানার পর পুরসভার উপস্থিত স্বাস্থ্য বিভাগের আধিকারিকের সে বিষয়ে জানতে চান পুরো প্রশাসক মন্ডলী প্রধান ফিরহাদ হাকিম।স্বাস্থ্য বিভাগের আধিকারিক জানান বার্থ রেজিস্ট্রেশন সার্টিফিকেট সংশ্লিষ্ট সরকারি হাসপাতাল থেকেই নিতে হবেনির্দেশ রাজ্যের স্বাস্থ্য দফতরের। এরপর ফিরহাদ হাকিম জানতে চান কেন কলকাতা পুরসভা রেজিস্ট্রেশন রেকর্ড থাকবে না? যদিও সেই আধিকারিক জানান স্বাস্থ্য ভবনের নির্দেশেই এটা চলে আসছে।

মেয়র ঘুরিয়ে আধিকারিকের কাছে জানতে চান ১০ বা ৩০ বছর বাদে যদি কেউ বাদ সার্টিফিকেট জন্য কলকাতা পৌরসভায় আবেদন জানায় সে ক্ষেত্রে ওই ব্যক্তিকে খালি হাতেই ফিরবেন।স্বাস্থ্য আধিকারিক জানান বর্তমানে সেই সমস্যার মুখোমুখি হতে হচ্ছে পুরসভাকে। ফিরহাদ হাকিম জানান পুরসভা ও মানুষের স্বার্থে অবিলম্বে কলকাতা পুরসভার পক্ষ থেকে সমস্ত কলকাতায় অবস্থিত সরকারি হাসপাতালের কাছ থেকে বার্থ রেজিস্ট্রেশন এর ডাটা সংগ্রহ করতে।পুরসভার প্রশাসক মন্ডলীর প্রধান ফিরহাদ হাকিম বলেন অবিলম্বে রাজ্যের স্বাস্থ্য দফতরের সাথে এবিষয়ে কথা বলবেন।পাশাপাশি মল্লিক দম্পতিকে তিনি জানান তাঁর সমস্যা সমাধান হয়ে যাবে।এক থেকে দুদিনের মধ্যেই মল্লিক দম্পতির হাতে সন্তানের জন্মের শংসাপত্র তুলে দেওয়া হবে।