Date : 2021-10-22

High Court : অবসরপ্রাপ্ত সরকারি কর্মচারীদের সরকারি বাসস্থান দখল মামলায় বেনজির মন্তব্য প্রধান বিচারপতির।

ষষ্ঠী চট্টোপাধ্যায়, রিপোর্টার : সরকারি আবাসন দখলদারি সংক্রান্ত মামলায় বেনজির মন্তব্য ভারপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতি রাজেশ বিন্দলের।বুধবার মামলার শুনানিতে তিনি বলেন এতদিনে বেয়াইনি কত কোয়ার্টার দখল হয়ে আছে তার হিসেব পেলেও উচ্ছেদ করতে আবার দশক পেরিয়ে যাবে না তো! রাজ্যকে সন্দিহান প্রশ্ন হাইকোর্টের। ভারপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতির ডিভিশন বেঞ্চের প্রশ্ন, এখনও কত টাকা ভাড়া বাবদ তুলতে পেরেছেন? রাজ্য বিষয়টি নিয়ে আমতা আমতা করতেই আদালতের বক্তব্য, রাজ্যের দায়িত্বে থাকা অফিসাররা কি ঘুমিয়ে থাকেন? কেন তাদের বিরুদ্ধে ব্যাবস্থা নেওয়া হয় না। এ জির দাবি, তারা সবাই দক্ষ অফিসার। তাতে হাইকোর্টের কটাক্ষ, এই দক্ষ শব্দটা ব্যাবহার করবেন না। এই কাজটা তাদের ডিউটির মধ্যে পরে।
হাইকোর্ট ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করার পর বুধবার কত সরকারি কোয়ার্টার দখল হয়ে আছে সে ব্যাপারে রিপোর্ট জমা দিল রাজ্য। একইসঙ্গে রাজ্য জানায় এখনও পর্যন্ত ১৯১ টি দখল উচ্ছেদ করা হয়েছে। বাকিদের ব্যাপারে প্রক্রিয়া চলছে।
এ রাজ্যে সরকারি কোয়ার্টার অবসর প্রাপ্ত কর্মীদের আজীবনের জন্য দেওয়া হয় শুনে আদালতের বিস্মিত প্রশ্ন, এটা কি স্টেট স্পন্সরড সিস্টেম? রাজ্য লাইসেন্স দিচ্ছে, যে যেখানে পারো দখল করো! অথচ যাঁরা এখনও চাকরি করছেন, তারা কোয়ার্টার পাচ্ছেন না।
আবেদনকারী চন্দ্রাবতী দেবীর মৃত পুলিশকর্মীর স্ত্রী পারিবারিক পেনশন কম পাওয়ার কারণে কলকাতা হাইকোর্টের দ্বারস্থ হয়েছিলেন। তাঁর স্বামী মফিল তেওয়ারি ১৯৯২ সালের পুলিশে চাকরি থেকে অবসর গ্রহণ করেন । তার পর থেকে স্বামীর পেনশনের অর্ধেক টাকা পাওয়া বিষয়ে রাজ্য সরকারের বক্তব্য, স্বামীর মৃত্যুর পরও সরকারি আবাসন ছাড়েননি তিনি। বর্তমানে ওই আবাসন রয়েছেন তিনি। সেকারণেই তাকে কম পেনশন দেওয়া হচ্ছে।