Date : 2021-09-20

পুজোর আগে অতিরিক্ত আয়ের সুযোগ। “আশা” কর্মিদের পাশে সরকার

সঞ্জু সুর, রিপোর্টার : আশা কর্মিদের সুযোগ সুবিধা বৃদ্ধির জন্য সর্বদাই সচেষ্ট মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকার। বিশেষ করে তাদের আর্থিক অবস্থা যাতে ভালো হয় সেজন্য বিভিন্ন সরকারি প্রকল্পের কাজে তাদের ব্যবহার করার জন্য নির্দেশ দেন মুখ্যমন্ত্রী। এবার জনস্বাস্থ্য কারিগরি দফতরের কাজে আশা কর্মিদের কাজে লাগিয়ে তাদের কিছুটা অতিরিক্ত আয়ের সুযোগ করে দিতে উদ্যোগী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

সূত্রের খবর, বৃহস্পতিবার মন্ত্রীসভার বৈঠকে এই বিষয়ে দফতরের মন্ত্রী পুলক রায় কে নির্দেশ দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী।
কিভাবে কাজে লাগানো হবে আশা কর্মিদের ? জনস্বাস্থ্য কারিগরি দফতর সূত্রে খবর, এবার থেকে দুয়ারে গিয়ে পানীয় জল পরীক্ষা করা হবে। আর সেই কাজে আশা কর্মিদের ব্যবহার করা হবে। আশা কর্মিদের হাতে ফিল্ড টেস্টিং কিট তুলে দেওয়া হবে, যে কিট দিয়ে একজন আশা কর্মি পঞ্চাশ টি বাড়িতে জল টেস্ট করতে পারবেন। এক্ষেত্রে প্রতিটি টেস্ট পিছু ১০০ টাকা করে দেবে দফতর। পুজোর আগেই এই কাজ শুরু হয়ে যাবে।

এদিকে মুখ্যমন্ত্রীর স্বপ্নের জলস্বপ্ন প্রকল্পের কাজ যাতে সঠিকভাবে হয় তারজন্য শুক্রবার একটি উচ্চপর্যায়ের বৈঠক করেন মুখ্যসচিব। বৈঠকে মুখ্যসচিব ছাড়াও স্বরাষ্ট্র সচিব, জনস্বাস্থ্য কারিগরি দফতরের মন্ত্রী পুলক রায়, দফতরের সচিব সুরেন্দ্র গুপ্তা সহ বিভিন্ন দফতরের সচিব উপস্থিত ছিলেন। বৈঠকে ভার্চুয়ালি উপস্থিত ছিলেন জেলাশাসকরাও। নবান্ন সূত্রে খবর, বৈঠকে মূলতঃ রাজ্যের প্রতিটি জেলায় অঙ্গন‌ওয়াড়ি কেন্দ্র, স্কুল, স্বাস্থ্য কেন্দ্র এমনকি পঞ্চায়েত এলাকাতেও দ্রুত পরিস্রুত পানীয় জল পৌঁছে দেওয়ার উপর জোড় দেওয়া হয়েছে।

এক্ষেত্রে পাইপ লাইন বসানোর জন্য প্রয়োজনীয় জমি পেতে যাতে কোনো সমস্যা না হয়, সেই বিষয়টি নিশ্চিত করতে বলা হয়েছে জেলাশাসকদের। প্রসঙ্গত বাড়ি বাড়ি পানীয় জল পৌঁছে দেওয়ার ক্ষেত্রে আগষ্ট মাসে সারা দেশের মধ্যে এক নম্বর স্থানে পৌঁছেছে পশ্চিমবঙ্গ।