Date : 2021-11-27

সপ্তমীতে নবান্নে আগুন আতঙ্ক। দোষ স্বীকার মোবাইল সংস্থার।

সঞ্জু সুর, রিপোর্টার : সপ্তমীর দিন মোবাইল সংস্থার গাফিলতিতেই আগুন আতঙ্ক ছড়িয়েছিলো নবান্নে। চিঠি দিয়ে নিজেদের দোষ স্বীকার করেছে উক্ত সংস্থা।

সপ্তমীর দিন বেলা এগারোটার আশেপাশে নবান্নের ১৫ তলায় আগুনের ফুলকি চোখে পড়ে কর্তব্যরত পুলিশ কর্মিদের। তৎক্ষণাৎ নবান্নে থাকা দমকল বাহিনীর কর্মীরা পৌঁছান ১৫ তলায়। আগুন বেশি বড় হ‌ওয়ার আগেই নিভিয়ে ফেলা সম্ভব হয়। প্রাথমিকভাবে জানা যায় একটি মোবাইল সংস্থার কন্ট্রোলরুমের একজস্ট মেশিনে শর্ট সার্কিট হ‌ওয়ার কারণেই আগুন লেগেছিলো। যদিও এই ঘটনার কারণ অনুসন্ধানের জন্য মুখ্যসচিব হরিকৃষ্ণ দ্বিবেদি ডিজি ফায়ার ও পূর্ত দফতরের সচিব কে আলাদা করে তদন্ত করে দেখতে বলেছিলেন। শুক্রবার সেই তদন্ত রিপোর্ট জমা পড়ে নবান্নে।
সূত্রের খবর, রিপোর্টে উল্লেখ করা হয়েছে ভোডাফোনের টেকনিক্যাল সমস্যার কারণেই ওইদিন আগুন লাগার ঘটনা ঘটেছিলো। ইতিমধ্যেই ভোডাফোনের তরফে নবান্নকে চিঠি দিয়ে তাদের ত্রুটি স্বীকার করে নেওয়া হয়েছে। পূর্ত দপ্তর সূত্রে খবর, ভোডাফোনের প্যানেল রুমে হিট কমানোর একজস্ট ফ্যান খারাপ হয়ে যাওয়ার কারণে গরম হয়ে যায়। সেখান থেকেই আগুন লাগে। এর পরিপ্রেক্ষিতে ভোডাফোনের প্যানেল রুম ১৫ তলা থেকে নিচে নামিয়ে আনা হয়েছে। তবে শুধু ভোডাফোন নয়, নবান্নের ১৫ তলার ছাদে থাকা অন্য এক সার্ভিস প্রোভাইডার এয়ারটেলের প্যানেল রুমও ১৫ তলার ছাদ থেকে নিচে নামিয়ে আনা হয়েছে। সিদ্ধান্ত হয়েছে আর কোন মোবাইল সংস্থার প্যানেল বা কন্ট্রোলরুম নবান্নের ১৫ তলা ছাদের উপর থাকবে না। নবান্নের মতো হাই সিকিউরিটি জোনে এই ধরনের ঘটনা যাতে আর না ঘটে সেই কারণেই এই সিদ্ধান্ত পূর্ত দফতরের।