Date : 2021-10-22

West Bengal Flood Situation: ম্যান মেইড বন্যায় জলভাসি দক্ষিণবঙ্গ। তীব্র ক্ষোভ মুখ্যমন্ত্রীর।

সঞ্জু সুর, রিপোর্টার : নিজে ভবানীপুর কেন্দ্রের উপনির্বাচনে প্রার্থী। ভোটের সময় তাই নিয়েই ব্যস্ত থাকার কথা। কিন্তু তিনি মুখ্যমন্ত্রী, ফলে রাজ্যের কিছু অংশ যদি হঠাৎ করে বন্যার কবলে পরে তখন শুধু নিজের ভোটের কথা আর কি করে তার মাথায় আসে ? মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কেও তাই সারারাত ব্যস্ত থাকতে হয়েছে আসানসোল, বাঁকুড়ার বন্যা পরিস্থিতি নিয়ে। ডিভিসি-র ছাড়া জলে এই বন্যা পরিস্থিতি তৈরি হওয়া নিয়ে নিজের তীব্র ক্ষোভ ও উগড়ে দিলেন তিনি।

বছরে এক থেকে দু’বার ঘূর্নিঝড়, অতিবৃষ্টি নিয়ে বিপুল ক্ষয়ক্ষতির মুখে পড়তে হয় রাজ্যের বিস্তীর্ণ অংশকে। তার উপর যদি পার্শ্ববর্তী রাজ্যের অতিবৃষ্টির ফলে এরাজ্য ডুবে যায়, তাহলে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীর ক্ষোভ হওয়াটাই স্বাভাবিক। এমনিতেই গড় বৃষ্টির থেকে প্রায় 31 শতাংশ বেশি বৃষ্টি হয়েছে গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গে। তার উপর বুধবার রাতে হঠাৎ করে রাজ্যকে না জানিয়ে জল ছেড়ে দেয় ডিভিসি। যে জলে বৃহস্পতিবার সকাল থেকেই জলমগ্ন হতে শুরু করে আসানসোল, বাঁকুড়া, আরামবাগের বিস্তীর্ণ অংশ। খবর যায় মুখ্যমন্ত্রীর কাছে। ভোট নিয়ে ব্যস্ত থাকলেও তৎক্ষণাৎ মুখ্যসচিবকে নির্দেশ দেন যাতে ডিভিসি কর্তৃপক্ষ ও ঝাড়খন্ডের মুখ্যসচিবের সাথে তিনি কথা বলেন। মুখ্যমন্ত্রীর অভিযোগ, বুধবার রাতের পরেও বৃহস্পতিবার আবার প্রায় দুই লক্ষ কিউসেক জল ছাড়ে ডিভিসি। যার ফলে শুধু আসানসোল, বাঁকুড়া বা আরামবাগ নয়, জলমগ্ন হয়ে পরে পুরুলিয়া, ঝাড়গ্রাম, পশ্চিম মেদিনীপুর, হাওড়া জেলার অনেকটা অংশ। স্বাভাবিকভাবেই তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করে শুক্রবার মুখ্যমন্ত্রী জানান, “আমাদের রাজ্যে অতিবৃষ্টির ফলে বন্যা হলে তার দায় আমরা নিতাম। কিন্তু পাশের রাজ্যে বৃষ্টি হবে আর আমরা প্রতিবার ভেসে যাবো, এটা চলতে পারে না।

বারবার এই ঘটনা ঘটছে।” সরাসরি ডিভিসি-র দিকে আঙুল তুলে মুখ্যমন্ত্রীর অভিযোগ, “গত পঞ্চাশ বছর ধরে ডিভিসি তার ড্যাম গুলোর পলি পরিষ্কার করেনি। আর ডিভিসি-র এই কাজের খেসারত প্রতিবার দিতে হয় রাজ্যের মানুষকে।” এই বিষয় নিয়ে বারবার ডিভিসি কে বলা হয়ছে। বলা হয়েছে প্রধানমন্ত্রীকেও। কিন্তু যে কে সেই। শনিবার আকাশপথে জলমগ্ন হয়ে পড়া বানভাসি মানুষের অবস্থা পরিদর্শনে যাওয়ার কথা বলার পাশাপাশি তিনি একথাও জানালেন যে এবার এই বিষয়টার একটা হেস্তনেস্ত হওয়া প্রয়োজন।