Date : 2021-11-27

তরুণ সাংবাদিক খুনের নেপথ্যে ত্রিকোণ প্রেম, ধৃত প্রেমিকা-সহ বহু

তথাগত চ্যাটার্জি, নিউজ ডেস্ক : বিহারের মধুবনি জেলায় তরুণ সাংবাদিক অবিনাশ ঝায়ের আধপোড়া দেহ উদ্ধার ঘিরে শোরগোল পড়ে গিয়েছে। এবার এই কাণ্ডে উঠে এল এক চাঞ্চল্যকর মোড়। জানা গিয়েছে ত্রিকোণ প্রেমের সম্পর্ক থেকে খুন হতে হয়েছে তাকে। স্থানীয় এক সোশ্যাল মিডিয়ার সংবাদ মাধ্যমের চিত্র সাংবাদিক ছিলেন বুদ্ধিনাথ। দিন কয়েক থেকেই নিখোঁজ ছিলেন তিনি। পরে তাঁর পরিবারের এক সদস্যের খবরে রাস্তা থেকে বস্তাবন্দি অবস্থায় অবিনাশের আধপোড়া দেহ পাওয়া যায়। ভুয়ো মেডিক্যাল কেন্দ্রের বিরুদ্ধে সরব ছিলেন তিনি। নানাভাবে তাঁকে শাসানোও হচ্ছিল। মধুবনি পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে এই ঘটনায় এখনও পর্যন্ত মোট ছ-জনকে গ্রেফতার করা গিয়েছে। ধৃতেদর মধ্যে পূর্ণকলা দেবী নামে এক মহিলা। জানা গিয়েছে তাঁর সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক ছিল ওই সাংবাদিকের। তবে তাদের পথের কাঁটা হয়ে দাঁড়ায় পবন কুমার নামে অপর এক যুবক। পূর্ণকলা ও বুদ্ধিনাথের মেলামেশা ভালোভাবে মেনে নিতে পারেনি পবন কুমার। তলে তলে তাকে সরানোর ফন্দি আঁটতে থাকে সে। সূত্রের খবর এই কাজে পবনের সঙ্গী হয়েছিল রোশন কুমার নামে আরও এক যুবক।

রোশনের একটি ল্যাব ছিল বেনিয়াপট্টি এলাকায়। সেটি বেআইনি ছিল বলে জানা গিয়েছে। ওই বেআইনি ল্যাবটি বন্ধ করতে বুদ্ধিনাথ রোশনকে হুমকি দিয়েছিলেন বলেও জানা গিয়েছে। তবে ঠিক কীভাবে তাঁকে মৄত্যুর মুখে ঠেলে দেওয়া হল তা নিয়ে এখনও বেশকিছু প্রশ্ন রয়ে গিয়েছে। চলতি মাসের নয় তারিখ তাকে শেষ দেখা যায় একটি বাজারে। বেপাত্তা হওয়ার আগে বুদ্ধিনাথের মোবাইল সুইচ অফ করে দেওয়া হয়েছিল বলেও পুলিশ জানতে পেরেছে। সব মিলিয়ে এই খুনের ঘটনার নেপথ্যে এখনও বেশকিছু রহস্য রয়েছে বলে মনে করছে মধুবনি পুলিশ।