Date : 2021-11-27

বই বাজারে বইপ্রেমিদের ভিড়

শাহিনা ইয়াসমিন, রিপোর্টার : বাঙালির বারো মাসে তেরো পার্বণ শুনেছি, তবে বইয়েরও এক পার্বন আছে তা হলো বইমেলা। অতিমারিতে এবছর বইমেলা হয়নি। দীর্ঘ লকডাউনের ফলে মার খেয়েছে বইপাড়ার বিকিকিনিও। বইপ্রেমিদের মুখে হাসি ফোটাতে বঙ্গীয় প্রকাশক ও পুস্তক বিক্রেতা সভার উদ্যোগে শুরু হয়েছে কলেজস্ট্রিট বইবাজার।


করোনার কোপ থেকে বাদ পড়েনি বাঙালির প্রিয় বইমেলা। বইপ্রেমিদের উত্সাহ দিতে বঙ্গীয় প্রকাশক ও পুস্তক বিক্রেতা সভা শুরু করেছে বই বাজার। বইপাড়ায় মহাত্মা গান্ধী রোডে অবস্থিত বঙ্গীয় প্রকাশক ও পুস্তক বিক্রেতা সভার অফিস। তারই সভাগৃহে চলছে বই বাজার। বইবাজারে ৫০ শতকরা পর্যন্ত ছাড় দেওয়া হচ্ছে। আট থেকে আশি সকলের পছন্দের হরেক রকম বইয়ের সম্ভার দেখা গেল একই ছাদের তলায়। বয়স্ক থেকে পড়ুয়া সকলের ভিড় লক্ষ্য করা গেল এখানে। এই উদ্যোগকে সাধুবাদ জানিয়েছেন ডাক্তার সুজাতা রায় চৌধুরি, টোটন বসাকের মতো বইপ্রেমিরা।

অতিমারিতে স্কুল কলেজ বন্ধ থাকায় বই সেভাবে বিক্রি হয়নি। এবছর বইমেলাও হয়নি। এছাড়া প্রকাশকদের ছাপা বহু বই বন্ধ ঘরে মজুদ। এইসব কিছুর কথা ভেবেই বঙ্গীয় প্রকাশক ও পুস্তক বিক্রেতা সভা বইবাজারের আয়োজন করে বলে জানান বঙ্গীয় প্রকাশক ও পুস্তক বিক্রেতা সভার যুগ্ম সম্পাদক অলোক মজুমদার।


১০২ জন প্রকাশকের বই রয়েছে বইবাজারে। বহু দুষ্প্রাপ্য পুরনো বইও পাওয়া যাচ্ছে এখানে, এই প্রথমবার বঙ্গীয় প্রকাশক ও পুস্তক বিক্রেতা সভার পক্ষ থেকে এই উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। আগামীদিনে বছরে তিনবার বইবাজার করার কথা জানান বঙ্গীয় প্রকাশক ও পুস্তক বিক্রেতা সভার উদ্যোক্তারা। এছাড়া মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সোমবার ঘোষণা করেন সেন্ট্রাল পার্কে ৩১ জানুয়ারি শুরু হবে বইমেলা। ঘোষণায় খুশি বইপ্রেমি ও প্রকাশকরা।