Date : 2021-11-27

প্রায় ১ বছরের কৃষক আন্দোলনের পর পিছু হঠল কেন্দ্র, কৃষি আইন প্রত্যাহার করল মোদী সরকার

মাম্পি রায় , নিউজ ডেস্ক : টানা একবছর অনড় মনোভাব দেখালেও, অবশেষে তিন বিতর্কিত কৃষি আইন প্রত্যাহার করল কেন্দ্রীয় সরকার। গুরুনানক জন্মজয়ন্তীতে তিন কৃষি আইন প্রত্যাহার করার কথা ঘোষণা করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। তিনি বলেন, ছোট ও মাঝারি কৃষকদের কল্যাণের জন্যই 3টি আইন আনা হয়েছিল। কিন্তু আমাদের বোঝানোয় ত্রুটি রয়েছে।   তাই সংসদের আগামী অধিবেশনে আইন তিনটি প্রত্যাহার করবে সরকার।


প্রধানমন্ত্রীর ঘোষণার পর থেকেই উৎসবের আবহ তৈরি হয় একাধিক দিল্লি সীমানায়। উল্লাসের ছবি ধরা পড়েছে গাজিপুর, সিংঘু, টিকরি ও মোহালি সীমানায়। সংসদে কৃষি বিল পাশের পর থেকেই দিল্লি সীমানায় অবস্থান শুরু করেছিলেন কৃষকরা। কৃষি আইন প্রত্যাহার সহ একাধিক দাবিতেই আন্দোলন শুরু করেন তাঁরা। একবছরেরও বেশি সময় ধরে চলে সেই আন্দোলন।  প্রধানমন্ত্রী কৃষি আইন প্রত্যাহার করেছেন, এই খবর ছড়িয়ে পড়তেই উচ্ছ্বাসে মাতেন আন্দোলনকারীরা। কোথাও মিষ্টি বিলি করা হল, কোথাও আবার বাজি ফাটিয়ে বিজয়োৎসব পালন করলেন কৃষকরা।

কৃষি আইন প্রত্যাহারের ঘোষণায় আন্দোলন তুলে নিতে নারাজ কৃষকরা। ন্যূনতম সহায়ক মূল্য সহ একাধিক দাবি পূরণ করতে হবে বলে জানিয়েছেন তাঁরা। ভারতীয় কিষান ইউনিয়ন জানিয়েছে, কৃষি আইন প্রত্যাহার তাঁদের জয়ের প্রথম ধাপ। এবার কৃষিপণ্যে লাভজনক দাম পাওয়ার ক্ষেত্রে নিশ্চয়তা দিতে হবে। বিদ্যুৎ আইনে যে সংশোধনী আনা হয়েছে, তাও প্রত্যাহার করতে হবে। এছাড়া ন্যূনতম সহায়ক মূল্যও নিশ্চিত করতে হবে সরকারকে।


কেন্দ্রের সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছে সংযুক্ত কিষাণ মোর্চা। টানা এক বছরের আন্দোলনে প্রায় 700 কৃষকের মৃত্যু হয়েছে। কেন্দ্রীয় সরকারের জেদই এই মৃত্যুর জন্য দায়ী। তবে অবশেষে কৃষকরা আন্দোলনের ফল পেয়েছেন বলে জানান কৃষক নেতা যোগেন্দ্র যাদব।


বছর ঘুরলেই উত্তরপ্রদেশ, পঞ্জাবের ভোট। প্রবল কৃষক অসন্তোষের ফল আছড়ে পড়তে পারে এই দুই রাজ্যের নির্বাচনে। তাই বিপদ বুঝে কেন্দ্র পিছু হঠলেও, কৃষকরা এখনই আন্দোলন থেকে সরছেন না। তাঁদের আরও যে দাবিগুলি রয়েছে, তা পূরণ না হওয়া পর্যন্ত আন্দোলন চলবে বলে জানিয়েছে সংযুক্ত কিষান মোর্চা।


কৃষি আইন প্রত্যাহারের দাবিতে একাধিকবার সরব হয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী তথা তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। শুক্রবার বিতর্কিত তিন কৃষি আইন প্রত্যাহারের পরই এবিষয়ে প্রতিক্রিয়া দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। টুইট করে নেত্রী বলেছেন, কৃষি আইন প্রত্যাহার কৃষদের জয়। বিজেপির নৃশংসতার বিরুদ্ধে যে কৃষকরা নিরন্তর লড়াই চালিয়ে গিয়েছেন, তাঁদের প্রত্যেককে অভিনন্দন। এটা আপনাদের জয়। এই লড়াইয়ে যাঁরা প্রাণ হারিয়েছেন, তাঁদেরকে শ্রদ্ধা।


কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধী বলেছেন, সত্যাগ্রহ করে কৃষকরা অহঙ্কারের মাথা নত করে দিয়েছেন। অন্যায়ের বিরুদ্ধে এই জয়ে কৃষকদের অভিনন্দন। 5 রাজ্যের বিধানসভা ভোটের কথা মাথায় রেখেই কৃষি আইন প্রত্যাহার করা হল বলে মোদী সরকারকে বিঁধেছেন কংগ্রেস নেত্রী প্রিয়াঙ্কা গান্ধী এবং সমাজবাদী পার্টির সুপ্রিমো অখিলেশ যাদব।


সবমিলিয়ে অবশেষে কৃষক আন্দোলনের মুখে পিছপা হল কেন্দ্র। তবে উত্তরপ্রদেশ, উত্তরাখণ্ড পাঞ্জাব সহ 5 রাজ্যের বিধানসভা নির্বাচনের ঠিক আগে মোদী সরকারের এই সিদ্ধান্ত যথেষ্ট তাৎপর্যপূর্ণ বলে মনে করছেন রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের একাংশ।