Date : 2021-11-27

কমছে পেট্রোল-ডিজেলের দাম ?

মাম্পি রায়, নিউজ ডেস্ক : পেট্রোল-ডিজেলের শুল্ক কমিয়ে সাধারণ মানুষকে খানিকটা স্বস্তি দিয়েছে কেন্দ্র। ৩ নভেম্বর কেন্দ্রীয় সরকার ঘোষণা করে, পেট্রোপণ্যের দাম কমানোর লক্ষ্যে এক্সাইস ডিউটি তুলে নেওয়া হচ্ছে। এর ফলে পেট্রোল-ডিজেলের দাম ৫ থেকে ১০টাকা কমবে। ৪ নভেম্বর নতুন দাম কার্যকর হয়।

তবে ক্রুড অয়েলের দাম ঊর্ধ্বমুখী থাকায় পেট্রোপণ্যের দাম খুব একটা কমছে না। প্রায় ৯০ থেকে একশোর মধ্যেই রয়েছে প্রতি লিটার পেট্রোল ডিজেলের দাম। তবে এবার পেট্রোপণ্যের দাম কমাতে উদ্যোগী হয়েছে মোদী সরকার। strategic petroleum reserves থেকে ৫ মিলিয়ন ব্যারেল ক্রুড তেল বের করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে দেশ। তেলের দাম কমাতে একই পদক্ষেপ নিয়েছে আমেরিকা, জাপান, চিন, ব্রিটেন ও কোরিয়া। পেট্রোলিয়াম মন্ত্রকের একটি বিবৃতিতে বলা হয়েছে, এইসব দেশের সঙ্গে আলোচনা করেই ক্রুড অয়েল ছাড়বে ভারত। এই দেশগুলি গ্লোবাল এনার্জি কনজিউমারদের মধ্যে অন্যতম। ওই তালিকায় থাকা ভারতের রিজার্ভে প্রায় ২৬.৫ মিলিয়ন ব্যারেল তেল মজুত আছে।

সম্প্রতি আমেরিকা পেট্রোপণ্যের দাম কমাতে ক্রুড অয়েল ছাড়ার আহ্বান জানিয়ছে দেশগুলিকে। আমেরিকা নিজেদের strategic petroleum reserves থেকে ৫০ মিলিয়ন ব্যারেল ক্রুড অয়েল ছাড়বে।  মঙ্গলবারই বিবৃতি দিয়ে একথা জানিয়েছে হোয়াইট হাউজ। বাইডেন সরকারের বিবৃতিতে আরও বলা হয়েছে ক্রুড অয়েল ছাড়ার বিষয়ে চিন, ভারত, দক্ষিণ কোরিয়া, জাপান ও ব্রিটেনের সঙ্গে সমন্বয় রাখছে আমেরিকা।

ভারতীয় পেট্রলিয়াম মন্ত্রকের তরফে বলা হয়েছে, তাঁরা মনে করেন যে, তরল হাইড্রোকার্বনের দাম কমানো প্রয়োজন। তবেই বাজারে পেট্রোপণ্যের দাম কমানো যাবে। তেল উৎপাদনকারী দেশগুলির কাছে ভারত বারবার এই নিয়ে উদ্বেগপ্রকাশ করেছে।

তেল উৎপাদক দেশগুলির সংগঠন OPEC ক্রুড অয়েলের উৎপাদন আর বাড়াতে চায় না। সেজন্যই নয়া রণনীতি নিয়েছে ভারত, আমেরিকা সহ ক্রুড অয়েলের বড় উপভোক্তাদেশগুলি। এই সিদ্ধান্তে জ্বালানি তেলের দাম অনেকটাই কমতে চলেছে বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞ মহলের একাংশ।

ভারত আমেরিকা, চিন এবং অন্যবড় দেশগুলি বাজারে অতিরিক্ত ক্রুড ওয়েল আনতে কাজ করছে। জানা যাচ্ছে, আগামী ১০ দিনের মধ্যে এই কাজ শুরু হয়ে যাবে। ভারতের কাছে থাকা strategic oil reserves থেকে বের করা ক্রুড অয়েল রিফাইনারি এন্ড পেট্রোকেমিক্যাল লিমিটেড (MRPL) এবং হিন্দুস্তান পেট্রোলিয়াম কর্পোরেশনের কাছে বিক্রি করা হবে। এই দুটি তেল সংস্থা strategic oil reserves -এর সঙ্গে যুক্ত। উল্লেখ্য অন্ধ্রপ্রদেশের বিশাখাপত্তনম এবং কর্নাটকে strategic oil reserves রয়েছে। তাতে মোট ৩.৮ কোটি ব্যারেল পর্যন্ত তেল ধরে।