Date : 2021-11-27

দীর্ঘ অপেক্ষার শেষে চেনা ছন্দে ক্লাসরুম

নাজিয়া রহমান, রিপোর্টার : অনেকটাই কেটেছে করোনার ভয়। সবকিছুর মতো শিক্ষাঙ্গনও স্বাভাবিক হোক এমনটাই চাইছিলেন ছাত্র-ছাত্রী থেকে অভিভাবক ও শিক্ষক শিক্ষিকা।বেশ কয়েক মাস পরে বাজলো স্কুলের ঘন্টা। কোভিড বিধি মেনে শুরু হল নবম থেকে দ্বাদশ শ্রেণীর অফলাইন পঠনপাঠন। চলতি বছরের ফেব্রুয়ারিতে দিন কয়েকের জন্য এ রাজ্যে খুলেছিল স্কুল । তবে করোনার দ্বিতীয় দাপটে ফের বন্ধ হয়ে যায় স্কুল। এবার করোনা বধে একাধিক সর্তকতা অবলম্বন করা হয়েছে আর তার উপর ভরসা রেখেই খোলা হলো শিক্ষাঙ্গনের তালা।

মঙ্গলবার সকাল ৯.৩০র মধ্যেই পড়ুয়াদের অভ্যর্থনা জানাতে স্কুলে উপস্থিতি হয়ে যান শিক্ষক শিক্ষিকারা। ঘড়িতে ৯.৩০ বাজতেই স্কুল গেটে উপস্থিত হয়ে যায় পড়ুয়ারা। থার্মল গান দিয়ে তাপমাত্রা পরীক্ষা, স্যানিটাইজ  করার পর স্কুলে প্রবেশ করতে দেওয়া হয় ছাত্রছাত্রীদের। কোভিড বিধি মানার পাশাপাশি কোনও কোনও স্কুল পড়ুয়াদের ফুল, পেন ও চকলেট দিয়ে স্বাগত জানায়। স্কুলে এসে ক্লাসরুম, ব্ল্যাকবোর্ড, পুরোনো বন্ধু ফিরে পেয়ে যেমন খুশি পড়ুয়ারা তেমনই আনন্দিত শিক্ষক শিক্ষিকারা।

এবার শুধু স্কুল নয়। প্রায় কুড়ি মাস পরে খুলল কলেজ বিশ্ববিদ্যালয়ের দরজা। সেখানেও ছন্দে ফিরছে ক্লাসরুম। কোভিড বিধি মেনে সেখানেও শুরু হল ক্লাস। কলেজে এক সঙ্গে সব পড়ুয়া না এনে বিভাগ অনুযায়ী ভাগ করে দেওয়া হয়েছে ক্লাস। দুরত্ববিধি মানতেই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে ই বক্তব্য কলেজগুলির। বিশ্ববিদ্যালয় গুলির ক্ষেত্রে বিভাগীয় প্রধানদের উপর কোভিড বিধি মেনে ক্লাস পরিচালনার দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। সেই মতই বিশ্ববিদ্যালয়েও শুরু হল অফলাইন পঠনপাঠন।

মানব জীবনযাত্রায় বেড়ে ওঠার আনন্দের আসল রসদটা লুকিয়ে থাকে শিক্ষাঙ্গনে। তবে করোনা আবহে পড়ুয়াদের স্বাস্থ্যের কথা মাথায় রেখে বন্ধ রাখা হয়েছিল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান। খুলল সেই দরজা। হোক না করোনা বিধি মানতে তবুও স্কুল কলেজ বিশ্ববিদ্যালয়ে অফলাইনে পঠনপাঠন শুরু হওয়ায় আনন্দিত ছাত্রছাত্রীরা।