Date : 2022-08-10

করোনা আতঙ্কে বাতিল প্রায় ১১,৫০০ বিমান

রিমিতা রায়, নিউজ ডেস্ক : বর্ষবরণের আনন্দে বিশ্ব জুড়ে উৎসবের আমেজ। আলোয় আলোয় সেজে উঠেছে নানা প্রান্ত । তার মধ্যেই বাধ সাধছে ওমিক্রন। উত্সবের মরশুমে আরও যেন বাড়বাড়ন্ত করোনার নতুন ভ্যারিয়েন্টের। নতুন করে বিধি-নিষেধের চোখ রাঙানি শুরু হয়েছে একাধিক দেশে। এতেই সমস্যায় পড়েছেন বহু মানুষ। অনেকেই আটকে পড়েছেন নানা স্থানে। কর্মক্ষেত্র থেকেও বাড়ি ফিরতে পারেননি অনেকে। একাধিক দেশে বিমান পরিষেবা বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে করোনা সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণের জন্য। জানা গিয়েছে এর মধ্যে বিশ্ব জুড়ে ১১ হাজার ৫০০ বিমান বাতিল করা হয়েছে। শুক্রবার থেকে সোমবার পর্যন্ত বিশ্বে মোট ১১ হাজার ৫০০ বিমান বাতিল হয়েছে। এ ছাড়া কয়েক হাজার বিমান দেরিতে চলেছে। ওমিক্রনের আতঙ্কেই প্রভাব পড়েছে বিমান চলাচলে। সোমবারই বাতিল হয়েছে ৩০০০ বিমান। তবে শুধু সোমবার নয়, মঙ্গলবারও একই অবস্থা। প্রায় ১১০০ বিমান বাতিল করা হয়েছে। লন্ডনে দেখা যাচ্ছে, গোটা শহরই কার্যত আক্রান্ত কোভিডে। পরিসংখ্যান বলছে, প্রত্যেক দিন রেকর্ড ভেঙে বাড়ছে সংক্রমণ। লন্ডনে সংক্রমণে নিয়ন্ত্রণে আসার কোনও সম্ভাবনাই দেখছে না প্রশাসন। এত বেশি মানুষ আক্রান্ত হয়েছে যে অফিসে, কারখানায় কর্মী সংখ্যাও কমে গিয়েছে। অনেকেই অসুস্থ হওয়ায় আইসোলেশনে রয়েছেন। হাসপাতালগুলিকে সতর্ক করা হয়েছে। আমেরিকায় করোনা সংক্রমণ এত বেশি হারে বাড়ছে যে, জানুয়ারিতে তা রেকর্ড ছুঁয়ে ফেলবে বলে আশঙ্কা বিশেষজ্ঞদের। আমরিকার অফিসগুলিতে কর্মী সংখ্যা কমতে শুরু করেছে। এতটাই কমেছে যে, নিয়ম বদলাতে চাইছে প্রশাসন। আইসোলেশনের ক্ষেত্রেও নতুন নিয়ম জারি করা হয়ছে। বলা হয়েছে, আইসোলেশন হবে পাঁচদিনের। পাঁচদিনই সর্বদা মাস্ক পরে চলাফেরা করতে হবে। বিশেষত যে সব অঞ্চলে টিকাকরণ কম হয়েছে সেখানকার করোনা চিত্রটা অনেকটাই প্রকাশ্যে আসেনি। তাই সে সব এলাকার বাসিন্দাদের মধ্যে আতঙ্ক আরও বাড়ছে। প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন জানিয়েছেন, কোনও কোনও হাসপাতালে রোগীর সংখ্যা একধাক্কায় অনেকটাই বেড়ে গিয়েছে।