Date : 2022-08-10

বেতন নেই ৩ মাস! ইমরান খানকে তুলোধনা পাক দূতাবাস কর্মীদের

তথাগত চ্যাটার্জি, নিউজ ডেস্ক : যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশ পাকিস্তান। করোনার প্রভাবে মুখ থুবড়ে পড়েছে পাকিস্তানের অর্থনীতির চাকা। দেশের অন্দরে মূল্যবৃদ্ধি আকাশ ছুঁয়েছে। সেইসঙ্গে পেট্রোপণ্যের দামও নিত্যদিন ছ্যাঁকা ধরাচ্ছে দেশের নাগরিকদের। এবার পাক দূতাবাসের কর্মীরা এক ভয়ঙ্কর অভিযোগ আনলেন সে দেশের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের বিরুদ্ধে। পাক দূতাবাসের তরফ থেকে একটি টুইটে পাক প্রধানমন্ত্রীকে খোঁচা দিয়ে বলা হয়েছে, গত তিনমাস ধরে কর্মীদের বকেয়া বেতন মেটান নি তিনি। ওই টুইটে লেখা হয়েছে দেশের মূল্যবৃদ্ধি যখন সমস্ত রেকর্ড ভেঙে দিচ্ছে তখন বিনা বেতনে কীভাবে আমরা দিনের পর দিন কাজ করে যাব? পাক প্রধানমন্ত্রীকে তোপ দেগে আরও বলা হয়েছে দীর্ঘ তিনমাস ধরে আমরা বেতন পাইনি। প্রবল অর্থকষ্ট দেখা দিয়েছে আমাদের সংসারে। অনটনের জেরে আমাদের সন্তানদের স্কুল থেকে বের করে দেওয়া হচ্ছে।

এটাই কি নতুন পাকিস্তানের ছবি? প্রকান্তারন্তরে তাঁরা বলতে চেয়েছেন হয়ত ইমরান খানের সরকারের বিরুদ্ধে দাঁতনখ বের করতে করতে চাননি। কিন্তু বেতনহীন অবস্থায় থাকতে থাকতে তাঁদেরও সহ্যের সীমা ভেঙে গিয়েছে। জঙ্গি-সন্ত্রাস, হানাহানি নিয়ে বছরের বেশিরভাগ সময়ই আতঙ্কে থাকে পাকিস্তান। তবে শত মাথা নোয়ানোর পরেও চলতি বছর টি-২০ বিশ্বকাপ ক্রিকেটে দূরন্ত খেলেছে পাকিস্তান। প্রথম ম্যাচে ভারতকে তারা হারিয়েওছিল। এই নিয়ে পাক ক্রিকেট দলকে কুর্ণিশ জানিয়েছিলেন খোদ পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। বেতনহীন পাক দূতাবাসের কর্মীরা টুইটের সঙ্গে জুড়ে দিয়েছেন একটি ভিডিও। তাতে একটি ভিডিও। দিন কয়েক আগেই ওই ভিডিওটি ভাইরাল হয়েছিল সোশ্যাল মিডিয়ায়। তার নাম আপনে ঘাবরানা নেহি। এছাড়াও টুইটে লেখা হয়েছে এই পথ ছাড়া প্রতিবাদ করার আর কোনও পন্থা ছিল না আমাদের কাছে। তবে এই ঘটনার কোনও রকম প্রতিক্রিয়া দেওয়া হয়নি পাক সরকারের তরফ থেকে। তবে ওয়াকিবহাল মহলের ধারনা, গোটা বিষয়টি ধামাচাপা দিতে চাইছে পাকিস্তান। সূত্রের খবর পাক প্রধানমন্ত্রীর নেটমাধ্যমের বিষয়গুলি যিনি দেখেন, তাদের তরফ থেকে জানানো হয়েছে পাক দূতাবাসের টুইট হ্যাক করা হয়েছিল। গোটা ঘটনাটি হ্যাকারদের কারসাজি।