Date : 2022-05-25

রেলের নিয়োগকে কেন্দ্র করে উত্তপ্ত বিহার

রিমিতা রায়, নিউজ ডেস্ক : রেলের নিয়োগ পরীক্ষায় অনিয়মের অভিযোগ। প্রতিবাদে ভাঙচুর করে ট্রেনে আগুন ধরিয়ে দিল বিক্ষোভকারীরা। সাধারণতন্ত্র দিবসের দিনেই ঘটনাটি ঘটেছে বিহারে। জানা গিয়েছে, রেলওয়ে নিয়োগ বোর্ডের ২০২১ সালের নন-টেকনিক্যাল পপুলার ক্যাটেগরির পরীক্ষার এখনও ফল প্রকাশ না হওয়াতেই উত্তেজনা শুরু হয় চাকরিপ্রার্থীদের মধ্যে। মঙ্গলবার থেকেই তাঁরা বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন। বুধবার গয়া স্টেশনে একটি ট্রেন ভাঙচুর করে ইঞ্জিন ও কয়েকটি কামরায় আগুন লাগিয়ে দেয় আন্দোলনকারীরা। উত্তপ্ত হয়ে উঠে পরিস্থিতি। বিক্ষোভকারীরা ট্রেন লক্ষ্য করে ইট-পাথর ছুঁড়তে থাকে। ভেঙে দেয় ট্রেনের জানালা। বেশ কিছু বিক্ষোভকারী ট্রেনে আগুন লাগিয়ে দেন। রেলের কামরা থেকে ঘন কালো ধোয়া বার হতে দেখা যায়। বিক্ষোভকারীদের সামাল দিতে লাঠিচার্জ করে পুলিশ। ট্রেনে আগুনের খবর পেয়েই পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে ঘটনাস্থলে আসে পুলিশ ও আরপিএফ। পুলিশ বিক্ষোভকারী দুই পক্ষের মধ্যে ধুন্ধুমার বাধে।

আন্দোলনকারীদের অভিযোগ, রেলওয়ের নন-টেকনিক্যাল পপুলার ক্যাটেগরির পরীক্ষা নিয়ে জালিয়াতি করা হয়েছে।আপাতত পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে বলে জানিয়েছে পুলিশ। এদিকে এই বিক্ষোভের কথা তুলে ধরে বিহার সরকার এবং কেন্দ্রকে একসঙ্গে বিঁধেছেন রাহুল গাঁধী। এক টুইটে তিনি লেখেন, প্রত্যেক যুবকের অধিকারের জন্য আওয়াজ তোলার স্বাধীনতা রয়েছে। আর এটা যাঁরা ভুলে যান, তাঁদের মনে রাখা উচিত, দেশে এখনও লোকতন্ত্র আছে, গণতন্ত্র ছিল, গণতন্ত্র থাকবে। জানা গিয়েছে, ১৫ জানুয়ারিই প্রথম ধাপের কম্পিউটার ভিত্তিক পরীক্ষার ফল প্রকাশ করা হয়। সেখানেই দ্বিতীয় ধাপে পরীক্ষার কথা উল্লেখ করা হয়েছে। ২০১৯ সালে বিজ্ঞপ্তি জারি করা হলেও এখনও পর্যন্ত দ্বিতীয় ধাপের পরীক্ষা নিয়ে কিছুই জানতে পারেননি চাকরিপ্রার্থীরা। তাতেই ক্ষুব্ধ হয়ে উঠে আন্দোলনকারীরা। বুধবার একের পর এক ট্রেন বিক্ষোভের জেরে থমকে যায়। সকাল থেকে অবরোধ চলে পাটনা- গয়া রেলপথে। বিক্ষোভের জেরে বুধবার সাধারণতন্ত্র দিবসে কার্যত রণক্ষেত্রের চেহারা নেয় গয়া স্টেশন।