Date : 2022-10-06

Extension of air embargo : বিমান নিষেধাজ্ঞার মেয়াদ বৃদ্ধি

পৌষালী সেনগুপ্ত, নিউজ ডেস্ক : দেশে নতুন করে মাথাচারা দিয়েছে ওমিক্রন। এদিকে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বলছে, অতিমারি শেষ হতে ঢের দেরি। এমন পরিস্থিতিতে যাত্রীবাহি আন্তর্জাতিক বিমান চলাচলের উপর নিষেধাজ্ঞার মেয়াদ আরও বাড়াল কেন্দ্র। বুধবার নতুন নির্দেশিকা জারি করল অসামরিক বিমান পরিষেবার ডিরেক্টর জেনারেল বা ডিজিসিএ। নয়া নির্দেশিকায় জানানো হয়েছে, যাত্রীবাহী আন্তর্জাতিক বিমান চলাচল পরিষেবা উপর নিষেধাজ্ঞার মেয়াদ ২৮ ফেব্রুয়ারি অবধি বাড়ানো হল। তবে পণ্যবাহী বিমানের উপর কোনও নিষেধাজ্ঞা নেই। বায়ো বাবলের মধ্যে আন্তর্জাতিক বিমান চলাচল করছে সেই রীতিতেও কোনও হেরফের করা হয়নি। উল্লেখ্য, ২০২০ সালের ২৩ মার্চ থেকে বন্ধ রয়েছে এই উড়ান পরিষেবা। নতুন বছরে এই পরিষেবা স্বাভাবিক হওয়ার আশা করা হয়েছিল। কিন্তু বিশ্বজুড়ে নতুন করে সংক্রমণ ঊর্ধ্বমুখী হওয়ায় নিষেধাজ্ঞার মেয়াদ বারবার বৃদ্ধি করা হচ্ছে।

একুশের ডিসেম্বরের শুরুতে ইঙ্গিত মিলেছিল, নতুন বছর থেকে চালু হতে পারে আন্তর্জাতিক বিমান। অসামরিক বিমান মন্ত্রী জ্যোতিরাদিত্য সিন্ধিয়া জানিয়েছিলেন, নতুন করে কিছু দেশে করোনার প্রকোপ বাড়ছে। সেসব খতিয়ে দেখে তবেই আন্তর্জাতিক পরিষেবা চালুর সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। কেন্দ্র সিদ্ধান্ত নেয়, ২১ মাস পর, ক্রিসমাসের আগেই চালু হবে আন্তর্জাতিক উড়ান। কিন্তু তা হয়নি। ওমিক্রন সংক্রমনের আশঙ্কায় ফের নিষেধাজ্ঞার মেয়াদ বাড়ানো হয়। এবার আরও একমাসের জন্য এই বিধিনিষেধের মেয়াদ বাড়িয়ে দিল কেন্দ্রীয় সরকার।করোনা যুদ্ধে অনেকটা এগিয়ে যাওয়ার পর যাত্রীদের সুবিধার কথা মাথায় রেখে এখন বেশ কয়েকটি দেশের সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক ‘এয়ার বাবল’ চুক্তির মাধ্যমে সীমিত সংখ্যক বিমান চলাচল করছে। বর্তমানে ৩১ টি দেশের সঙ্গে এয়ার বাবল চুক্তিতে আবদ্ধ রয়েছে ভারত। এর মধ্যে রয়েছে আমেরিকা, ব্রিটেন, সংযুক্ত আরব আমিরশাহী, কেনিয়া, ভুটান , ফ্রান্স, বাংলাদেশ-সহ আরও বেশ কয়েকটি দেশ।