Date : 2022-05-27

ইমিউনিটি বাড়াবে ‘কাড়া’

রিমিতা রায়, নিউজ ডেস্ক : করোনাকালে কাড়া খাচ্ছেন অনেকেই। রোগপ্রতিরোধক ক্ষমতা বাড়াতে প্রতিদিনই পুষ্টিকর খাবারের সঙ্গে কাড়াকেও জায়গা দিয়েছেন। করোনার কাঁটা থেকে নিজেকে সুরক্ষিত করতে অনেকেই ভরসা রাখছেন আয়ুর্বেদের ওপরে। করোনার নির্দিষ্ট ওষুধও নেই এখনও। তাই রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে বারবার জোর দিচ্ছেন বিশেষজ্ঞরা। শরীরকে করোনার এক এক ভ্যারিয়েন্টের বিরুদ্ধে লড়তে ইমিউনিটি বাড়ানোরই বড় হাতিয়ার কাড়া। এই কাড়া বাড়িতেই তৈরি করে খাওয়া যায়। কোনও ওষুধ প্রাকৃতিক জিনিস থেকে তৈরি হলে তাঁর ক্ষতিকর প্রভাব অনেকটাই কম থাকে। কাড়া তৈরিতে যে উপাদানগুলি প্রয়োজন সেগুলি আপনার রান্নাঘরের আশেপাশে পাওয়া যাবে। এখন প্রশ্ন কাড়া কি করে বানাবেন?
এই কাড়া তৈরি করতে ১০০ গ্রাম দারুচিনি ১০গ্রাম, তেজপাতা ১০ গ্রাম, মৌরি ৫০ গ্রাম, ছোট এলাচ ১৫গ্রাম এবং গোলমরিচ ১০গ্রাম প্রয়োজন। এক পাত্রে দুই কাপ জল, ৭-৮টা তুলসী পাতা নিতে হবে। ৫ টি গোলমরিচ, ৫টি লবঙ্গ এবং এক টেবল চামচ আদা নিতে হবে। কমপক্ষে ১০ মিনিটের জন্য এই উপাদানগুলি সিদ্ধ করতে হবে। তারপরে ফিল্টার করে একটি গ্লাসে রেখে দিতে হবে। যদি এটি হালকা হয় তবে এক চামচ মধু যোগ করে ভালো করে মিশিয়ে তবে খেতে হবে।
কাড়ার বিশেষ উপকারিতা কি?
ঠাণ্ডা লাগা, সর্দি, বুকের ব্যথা কাড়ার মাধ্যমে সহজ ঘরোয়া প্রতিকারের মাধ্যমে নিরাময় করা যায়। কাড়াতে আদা ও তুলসিপাতা থাকে বলে কাশির জন্যও কাড়া উপকারী।তবে উপকারী বলেই যত ইচ্ছে কাড়া পান করলে হিতে বিপরীত হতে পারে। কাড়া প্রচুর খেলে অম্বল, ডায়ারিয়া, মুখে-গলায়, অস্বস্তি হতে পারে। তাই ঘন ঘন কাড়া পান করার আগে একটু সতর্ক হয়ে নেওয়াই ভাল। না হলে হিতে বিপরীত হওয়াও অসম্ভব নয়। আপনি যদি প্রতিদিন এটি খেয়ে থাকেন, তবে মশলার উপস্থিতির কারণে দেহে এক ধরনের প্রদাহ তৈরি হয়। যা অম্বল, বুক জ্বালার মতো সমস্যা তৈরি করতে পারে।