Date : 2022-05-27

Opera’s Future : অনিশ্চয়তার মুখে যাত্রার ভবিষ্যৎ

শাহিনা ইয়াসমিন, রিপোর্টার : উর্ধ্বমুখী করোনা সংক্রমণের জেরে নতুন করে বিধিনিষেধ কার্যকর করা হয়েছে রাজ্যজুড়ে। এর জেরে শীতের মরশুমে যাত্রার বায়না হলেও, আশঙ্কায় চিতপুরের যাত্রাপাড়ার শিল্পী থেকে পরিচালক সকলেই। ৫০ শতাংশ দর্শক নিয়ে যাত্রা দেখানোর অনুমোদন দেওয়া হোক, রাজ্য সরকারের কাছে এমনই আবেদন জানিয়েছেন যাত্রাপালার মালিকরা।
শহরতলি ও গ্রামাঞ্চলের মনোরঞ্জনের অন্যতম মাধ্যম যাত্রাপালা।

শীতের মরশুমে গ্রামেগঞ্জে বিভিন্ন ধরণের যাত্রাপালা হয়ে থাকে। সেইসময়টাতেই কিছুটা বাড়তি লাভের আশায় থাকেন যাত্রাশিল্পীরা। গতবছরও লকডাউনের জেরে বিশেষ আয় হয়নি তাঁদের। বছরে শুরুতে ফের নতুন করে বিধিনিষেধ কার্যকর হওয়ায় মুখ থুবড়ে পড়ল যাত্রাপালার ভবিষ্যত নয়া বিধি অনুযায়ী ৫০ শতাংশ দর্শক নিয়ে সিনেমা হল চালু রাখার অনুমোদন দিয়েছে রাজ্য সরকার। যাত্রাপালার ক্ষেত্রেও একই নিয়ম কার্যকর করা হোক, এমনই দাবি জানিয়েছেন পশ্চিমবঙ্গ যাত্রা সম্মেলনের সভাপতি সমীর সেন।

2 লক্ষের বেশি মানুষ যাত্রাপালার সঙ্গে যুক্ত। যাত্রাপালা বন্ধ হয়ে গেলে অনাহারে মরতে হবে তাঁদের। তাই ওই শিল্পীদের মুখ চেয়ে যাত্রাপালার অনুমতি দিক সরকার। স্বাস্থ্যবিধি মেনেই যাত্রার সমস্ত আয়োজন করা হবে, জানান পশ্চিমবঙ্গ যাত্রা সম্মেলনের সভাপতি সমীর সেন।