Date : 2022-10-05

উপাচার্যের পদত্যাগ না করা পর্যন্ত আন্দোলন চলবে, হুঁশিয়ারি পড়ুয়াদের

রিমা দত্ত, নিউজ ডেস্ক : আগেই উত্তপ্ত পরিস্থিতি তৈরি হয়েছিল বাংলাদেশের সিলেট জেলার শাজাহানলাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে। এবার উপাচার্যের পদত্যাগের দাবিতে বেশ কিছুদিন ধরেই সরব হয়েছে পড়ুয়ারা। আন্দোলন চালাচ্ছে বিশ্ববিদ্যালয় তাঁরা। শুক্রবার আন্দোলনকারীদের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ফরিদ উদ্দিন আহমেদ ক্যাম্পাস ত্যাগ করে চলে না দেওয়া অবধি আন্দোলন চালিয়ে যাবেন পড়ুয়াদের। বিভিন্ন সাংস্কৃতিক কর্মকাণ্ডের মাধ্যমে আন্দোলন চালিয়ে যাওয়া হবে বলেই জানিয়েছেন ছাত্র-ছাত্রীরা। শুক্রবার বিশ্ববিদ্যালয় প্রাঙ্গণে আয়োজিত একটি সাংবাদিক সম্মেলনে এমনটাই জানায় ছাত্র-ছাত্রীদেরা।

এদিন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকেও ধন্যবাদ জানিয়েছেন ছাত্রছাত্রীরা। ১৬ জানুয়ারি বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে পুলিশের লাঠিচার্জে আহত এবং অনশনরত অবস্থায় অসুস্থ ছাত্র-ছাত্রীদের চিকিৎসার সুবন্দোব্যস্ত করার জন্য প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন তাঁরা। জানা গেছে পুলিশের শটগানের স্প্লিন্টারে আহত ছাত্র সজল কুন্ডুর ঢাকাতে চিকিৎসা বন্দোবস্ত করেছে সরকার। শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি ছাত্র-ছাত্রীদের অসুবিধার কথা মাথায় রেখে বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে এসে তাঁদের সঙ্গে আলোচনায় বসার জন্য শিক্ষামন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন তাঁরা। রবিবার বিকেলে পড়ুয়ারা যখন আইসিটি ভবনে উপাচার্যকে ঘেরাও করেছিলেন তখন পুলিশ ছাত্রছাত্রীদের ওপর লাঠিচার্জ করে। সেদিনই অনির্দিষ্টকালের জন্য বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ করে দেওয়ার ঘোষণা করা হয়। বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়ুয়ারা নিজেদের দাবিতে আন্দোলন চালিয়ে যাচ্ছেন। ছাত্রছাত্রীদের ওপর পুলিশের লাঠিচার্জ এর প্রতিবাদে ঢাকা, রাজশাহী, খুলনা, এবং বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ে বিক্ষোভ দেখিয়েছেন পড়ুয়ারা।